সাংবাদিক ও অধিকার কর্মীদের সুরক্ষা বাড়ছে ফেইসবুকে

ছবি: রয়টার্স
এখন থেকে অধিকার কর্মী ও সাংবাদিকদের “অনৈচ্ছিক” জন ব্যক্তিত্ব হিসেবে বিবেচনা করবে ফেইসবুক। হয়রানি ও বুলিয়িংয়ের হাত থেকে বাঁচাতে বাড়িয়ে দেবে এ দলের সুরক্ষা। সম্প্রতি এ ব্যাপারে জানিয়েছেন ফেইবুকের বৈশ্বিক সুরক্ষা প্রধান।

অনলাইন আলোচনার ক্ষেত্রে জন ব্যক্তিত্ব ও প্রাতিষ্ঠানিক দায়িত্বপালনকারীর সুরক্ষা প্রশ্নে পার্থক্য রয়েছে ফেইসবুকে। যেমন- সাধারণত ব্যবহারকারীরা কোনো আলোচনায় কোনো তারকার মৃত্যু কামনা করতে পারেন, যতক্ষণ না ওই তারকাকে ট্যাগ করা হচ্ছে বা সরাসরি তারকার নাম নেওয়া হচ্ছে। কিন্তু প্রাতিষ্ঠানিক দায়িত্বপালনকারীর ক্ষেত্রে নিয়মটি উল্টো, তার মৃত্যু কামনা করা যাবে না। ফেইসবুকের নীতি অনুসারে, এখন সাংবাদিকরাও এ কাতারে পড়বেন।

রয়টার্সের প্রতিবেদন বলছে, অন্যান্য অনৈচ্ছিক জন ব্যক্তিত্বের তালিকা প্রকাশ করতে রাজি হয়নি মার্কিন এ সামাজিক মাধ্যম জায়ান্ট। শুধু জানিয়েছে, ‘কেস-বাই-কেস’ ভিত্তিতে মূল্যায়ন করা হচ্ছে তাদের।

এ বছরের শুরুতে ফেইসবুক জানিয়েছিল, যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশি নিপীড়নে মৃত জর্জ ফ্লয়েডকে উপহাস করে করা পোস্ট সরানো হচ্ছে, কারণ তাকে অনৈচ্ছিক জন ব্যক্তিত্ব হিসেবে বিবেচনা করছে তারা।

ফেইসবুকের বৈশ্বিক সুরক্ষা প্রধান অ্যান্টিগন ডেভিস জানিয়েছেন, নারী, বিভিন্ন বর্ণের ব্যক্তিবর্গ ও এলজিবিটিকিউ কমিউনিটি যে অসম আক্রমণের সম্মুখীন হন, তা কমানোর প্রচেষ্টা হিসেবে প্ল্যাটফর্মে অননুমোদিত আক্রমণের তালিকাও বড় করা হচ্ছে।

এ ছাড়াও গুরুতর ও অবাঞ্ছিত যৌনতার কন্টেন্ট, অবমাননাকর যৌনতার ফটোশপড ছবি বা আঁকা ছবি বা সরাসরি কোনো মানুষের পরিচ্ছদ নিয়ে নেতিবাচক আক্রমণকে আর প্ল্যাটফর্মে ঠাঁই দেবে না ফেইসবুক। কোনো জন ব্যক্তিত্বের প্রোফাইলে আসা নেতিবাচক মন্তব্যও এমন আক্রমণ হিসেবে বিবেচিত হতে পারে।