হোয়াটসঅ্যাপের এনক্রিপ্টেড ব্যাকআপ সেবা চালু করবেন যেভাবে

আইওএস এবং অ্যান্ড্রয়েড প্ল্যাটফর্মের জন্য হোয়াটসঅ্যাপে এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপ্টেড ব্যাকআপ সেবা চালু করেছে ফেইসবুক। শুধু মেসেজ আদান-প্রদানের ক্ষেত্রে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের ‘এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপশন’ সেবা দিয়ে আসছে অনেক দিন ধরেই। এখন ডেটা ব্যাকআপের ক্ষেত্রেও মিলবে একই সুবিধা।

আইক্লাউড বা গুগল ড্রাইভে হোয়াটসঅ্যাপ ডেটা ব্যাকআপ হিসেবে রাখা যেত আগে থেকেই। তবে, সরকার বা আইন শৃঙ্খলা বাহিনী চাইলে গ্রাহকের ডেটা তাদের হাতে তুলে দিতে ক্ষেত্রবিশেষে বাধ্য ছিলো ব্যাকআপ প্ল্যাটফর্মগুলোর মূল প্রতিষ্ঠান। সেই পরিস্থিতি পাল্টে যাচ্ছে এনক্রিপ্টেড ব্যাকআপ সুবিধার বদৌলতে।

প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট ভার্জ জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার থেকে চালু হয়েছে হোয়াটসঅ্যাপের এনক্রিপ্টেড ব্যাকআপ সেবা। পাসওয়ার্ড বা ৬৪ বিট এনক্রিপশন কি দিয়ে ক্লাউড ব্যাকআপ নিরাপদ রাখতে পারবেন ব্যবহারকারী।

অর্থাৎ, তাত্ত্বিক দৃষ্টিকোণ থেকে বিবেচনা করলে, দেশের সরকার, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী বা তৃতীয় কোনো পক্ষ ক্লাউডে ব্যাকআপ হিসেবে রাখা ডেটা হাতে পেলেও তার অর্থ উদ্ধার করতে পারবে না, যদি না ব্যবহারকারী নিজে তাদের হাতে এনক্রিপশন কি তুলে দিয়ে ওই ব্যাকআপে প্রবেশাধিকার দেন।

এনক্রিপ্টেড ব্যাকআপ চালু করবেন যেভাবে:

ছবি: হোয়াটসঅ্যাপ

প্রথমে হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাপের সেটিংস-এ যেতে হবে। সেখান থেকে চ্যাটস > চ্যাট ব্যাকআপ > এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপ্টেড ব্যাকআপ চাপুন। এরপর ‘কন্টিনিউ’ চাপলে পাসওয়ার্ড অথবা এনক্রিপশন কি তৈরি করতে বলবে অ্যাপটি। এরপর ‘ডান’ চেপে হোয়াটসঅ্যাপকে আপনার ডেটার এনক্রিপ্টেড ব্যাকআপ তৈরির সময় দিন।

এখানে যে বিষয়টির দিকে খেয়াল রাখতে হবে সেটি হল এনক্রিপ্টেড ব্যাকআপের পাসওয়ার্ড বা কি হারিয়ে ফেললে ওই ব্যাকআপও চিরদিনের মতো হারিয়ে ফেলবেন ব্যবহারকারী। ওই ব্যাকআপ পুনরুদ্ধার করে দেওয়া বা হারিয়ে যাওয়া এনক্রিপশন কি খুঁজে দেওয়া হোয়াটসঅ্যাপের পক্ষেও সম্ভব নয়।   

এনক্রিপ্টেড ব্যাকআপ বন্ধ করবেন যেভাবে:

আবারও অ্যাপের সেটিংস-এ যেতে হবে। সেখান থেকে চ্যাটস > চ্যাট ব্যাকআপ > এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপ্টেড ব্যাকআপ চাপুন। এরপর পাসওয়ার্ড চাইবে অ্যাপটি। তারপর টার্ন অফ চেপে নিশ্চিত করতে হবে যে ব্যবহারকারী এনক্রিপ্টেড ব্যাকআপ সেবা বন্ধ করে দিতে চাইছেন।