টুইটারে দায়িত্ব পেয়েই নেতৃত্ব কাঠামোয় হাত দিয়েছেন আগ্রাওয়াল

টুইটারের হাল ধরেই পরাগ আগরাওয়াল হাত দিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির নেতৃত্ব কাঠামোয়। পণ্য আর প্রকৌশল বিভাগে নেতৃত্বের আগপাশতলা পাল্টে ফেলছেন তিনি।

শুক্রবার নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষের কাছে জামা দেওয়া ফাইলে টুইটার “বর্ধিত জবাবদিহিতা, কাজের গতি এবং পরিচালন দক্ষতার জন্য”, মহাব্যবস্থাপক পদ তৈরির কথা বলেছে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছে সিএনবিসি। নতুন কর্মপরিকল্পনা অনুসারে এই নির্বাহীরা “প্রকৌশল, পণ্য ব্যবস্থাপনা, নকশা এবং গবেষণা বিভাগগুলোয় নেতৃত্ব দেবেন।”

এরই মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ দুই বিভাগের দুই প্রধান প্রতিষ্ঠান ত্যাগ করছেন।

নতুন কাঠামোয় পণ্য বিভাগের সাবেক প্রধান কায়ভন বাইকপোর টুইটারের ভোক্তা মহাব্যবস্থাপক হবেন। রাজস্ব-পণ্য বিভাগের প্রধান ব্রুস ফালক রাজস্ব বিভাগের মহাব্যবস্থাপক  হবেন, এবং প্রকৌশলের ভাইস প্রেসিডেন্ট নিক কাল্ডওয়েল কেন্দ্রীয় প্রযুক্তি বিভাগের মহাব্যবস্থাপকের ভূমিকা গ্রহণ করবেন।

টুইটার জানিয়েছে, কর্মকৌশল ও পরিচালন বিভাগের জ্যেষ্ঠ পরিচালক লিন্ডসে আইনানুচ্চিকেও আগরাওয়ালকে সমর্থন করার জন্য ‘চিফ অফ স্টাফ’ এবং পরিচালন বিভাগের ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে উন্নীত করা হয়েছে।

অতীতে দীর্ঘসূত্রিতার জন্য টুইটার সমালোচিত হয়েছে বলে উল্লেখ করেছেন প্রতিষ্ঠানটির কর্পোরেট কমিউনিকেশনসের নতুন প্রধান লরা ইয়াজার্মান।

“আমরা দ্রুত সিদ্ধান্ত নিতে ও এগিয়ে যেতে চাই এবং পারাগ এ বিষয়ে নেতৃত্ব দিচ্ছেন।”

সোমবার নেতৃত্ব ছেড়ে দেওয়া ডরসি কর্মীদের একটি চিঠিতে বলেন, “আমি বিশ্বাস করি, প্রতিষ্ঠানটি এখন প্রতিষ্ঠাতাদের ছাড়াই এগিয়ে যেতে প্রস্তুত।”

৩৭ বছর বয়সী আগরাওয়াল এখন টুইটারের অভ্যন্তরীণ আগ্রাসী লক্ষ্যপূরণের দায়িত্ব পেয়েছেন। ২০২৩ সালের শেষ নাগাদ ‘অর্থে রূপান্তরযোগ্য’ সাড়ে ৩১ কোটি দৈনিক সক্রিয় ব্যবহারকারী অর্জন এবং ওই একই সময়ের মধ্যে বার্ষিক আয়ও অন্তত দ্বিগুণ করতে চায় প্রতিষ্ঠানটি।

পুনর্গঠনের অংশ হিসেবে যে প্রকৌশল বিভাগের প্রধান মাইকেল মোন্তানো এবং নকশা ও গবেষণা বিভাগের প্রধান ড্যান্টলি ডেভিস বছরের শেষ নাগাদ তাদের অবস্থান থেকে সরে দাঁড়াবেন এবং এর পরের তিন মাস প্রতিষ্ঠানটির উপদেষ্টা হিসেবে থাকবেন।