চিপ সঙ্কটে স্থবির ক্যামেরা উৎপাদন, ভুক্তভোগী এবার সনি

ছবি: সনি
এবার বৈশ্বিক চিপ সঙ্কটের ভুক্তভোগীর তালিকায় নাম লিখিয়েছে সনি’র নতুন মিররলেস ক্যামেরা। চিপ সঙ্কটের প্রভাবে মিররলেস ভ্লগিং ক্যামেরা জেডভি-ই১০’র সকল আগাম অর্ডার স্থগিত করতে বাধ্য হয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। চলতি বছরের অগাস্ট মাসেই ক্যামেরাটি বাজারজাত করা শুরু করেছিল জাপানের অন্যতম শীর্ষ এই ক্যামেরা নির্মাতা।

নিজস্ব ওয়েবসাইটে পোস্ট দিয়ে ক্যামেরার আগাম অর্ডার স্থগিত করার খবর জানিয়েছে সনি। আপাতত নিজস্ব বিক্রয়কেন্দ্র বা পরিবেশক-- কারও মাধ্যমেই ক্যামেরাগুলো বিক্রয় না করার কথা জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

সনি’র নিজস্ব ওয়েবসাইটে পোস্টটির ইংরেজি অনুবাদ বলছে, “ডিজিটাল ইমেজিং পণ্য প্রসঙ্গে, সেমিকন্ডাক্টর চিপের বৈশ্বিক ঘাটতির প্রভাবে যন্ত্রাংশ ক্রয় বিলম্বিত হচ্ছে।”

চলতি বছরে বৈশ্বিক চিপ সঙ্কটের প্রভাবে উৎপাদন থমকে গেছে সনি’র একাধিক পণ্যের। নভেম্বর মাসেই এ৭ ২, এ৬৪০০, এবং এ১৬০০ সিরিজের ক্যামেরার বিক্রি বন্ধ করে দিয়েছে সনি। একই সঙ্গে বিক্রি বন্ধ হয়েছে ইসিএম-বি১ শটগান মাইক এবং পিএক্সডব্লিউ-জেড ক্যামকর্ডারের।

এইচডিআর-সিএক্স৬৮০ ক্যামকর্ডারের বিক্রি বন্ধ হয়েছে এপ্রিল মাসে। আপাতত বিক্রির জন্য পাওয়া যাচ্ছে না এ৯ সিরিজের ক্যামেরাগুলোও। অনলাইন স্টোরে কিনতে পাওয়া যাচ্ছে না এ৭আর ২ ক্যামেরাও।

প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট ভার্জ বলছে, প্রযুক্তিনির্ভর অন্যান্য সব শিল্পের মতো চিপ সঙ্কটের শিকার হয়েছে ক্যামেরা নির্মাতারাও। ক্রেতাদের চাহিদা অনুযায়ী ডিভাইসগুলো উৎপাদন করতে পারছে না প্রতিষ্ঠানগুলো। যন্ত্রাংশের অভাবে, জেড৭ এবং জেড৭ ২ ক্যামেরার সঙ্গে ইএইচ-৭পি এসি অ্যাডাপ্টার দেওয়া বন্ধ করে দিয়েছে নিকন। নতুন ইওএস আর৩ ক্যামেরা কিনতে চাইলে দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করতে হবে বলে জানিয়েছে ক্যানন, চিপ সঙ্কটের ভুক্তভোগীর তালিকায় আছে ফুজিফিল্মও।