কনটেন্ট প্রযোজনা থেকে পিছু হটছে ইউটিউব

ছবি: রয়টার্স
নিজস্ব কনটেন্ট নির্মাণে গাঁটের পয়সা খরচের লাগাম টানতে যাচ্ছে ইউটিউব। সামনে কেবল ‘ব্ল্যাক ভয়েসেস’ এবং ‘ইউটিউব কিডস ফান্ডস’-এর অনুষ্ঠানগুলোর তহবিল যোগান দেবে শীর্ষ ভিডিও শেয়ারিং প্ল্যাটফর্মটি।

‘ইউটিউব অরিজিনালস’ হিসেবে পরিচিত কনটেন্টে মধ্যে ছিল ইউটিউব সিরিজ, শিক্ষামূলক ভিডিও, গান ও সেলিব্রেটিদের অংশগ্রহণে নানা অনুষ্ঠান। সম্প্রতি টুইট করে এই পরিবর্তনের খবর জানিয়েছেন ইউটিউবের প্রধান বাণিজ্যিক কর্মকর্তা রবার্ট কিনসল।

সামনের দিনগুলোতে কেবল ‘ইউটিউব কিডস ফান্ড’ এবং ‘ব্ল্যাক ভয়েসেস ফান্ড’-এর অধীনে কনটেন্টে নির্মাণ করবে ইউটিউব। ২০২০ সালে কৃষ্ণাঙ্গ নির্মাতাদের প্রচার বাড়াতে ওই প্রকল্পের অধীনে ১০ কোটি ডলারের তহবিল গঠনের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল ইউটিউব।

কিনসলের টুইটার বিবৃতি বলছে, “দ্রুত বিস্তারের সঙ্গে সঙ্গে নতুন নতুন সুযোগ তৈরি হয় এবং এখন আমাদের বিনিয়োগগুলো ‘ক্রিয়েটর শর্টস ফান্ড’, ‘ব্ল্যাক ভয়েসেস ফান্ড’ এর মতো অন্যান্য উদ্যোগে আরো বেশি সংখ্যক নির্মাতার উপর আরো বড় প্রভাব ফেলতে পারবে।”

প্রযোজনার মাঠে ইউটিউবের উপস্থিতি ছয় বছরের হলেও এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য তেমন কোনো অনুষ্ঠান তৈরি করতে পারেনি প্ল্যাটফর্মটি। ২০১৬ সালে সুসান ড্যানিয়েলসের নেতৃত্বে শুরু হয়েছিল ‘ইউটিউব অরিজিনালস’। কনটেন্ট নির্মাতাদের কেন্দ্রে রেখে কয়েকটি সিনেমা ও ‘স্ক্রিপ্টেড শো’ বানালেও বাজারে অবস্থান নিশ্চিত করতে বিভিন্ন সময়ে কৌশল পাল্টেছে প্ল্যাটফর্মটি।

২০১৭ সালে ‘সাবস্ক্রিপশন অনলি’ ইউটিউব অরিজিনালস থেকে ২৫ কোটি ভিউ পাওয়ার কথা বলেছিল ইউটিউব। পরবর্তীতে বিজ্ঞাপন সমর্থিত সেলিব্রেটি কনটেন্টের দিকে ঝোঁকা শুরু করে প্ল্যাটফর্মটি। কনটেন্টগুলো উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছিল সাবস্ক্রিপশনবিহীন দর্শকদের জন্যেও।

ইউটিউবের প্রযোজনা থেকে পিছিয়ে আসার পাশাপাশি ঘোষণা এসেছে ড্যানিয়েলসকে নিয়েও, মার্চ মাসে ইউটিউব ছাড়ছেন তিনি। প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট ভার্জ বলছে, কনটেন্ট প্রযোজনা কমিয়ে আনার সিদ্ধান্তে একমত ছিলেন তিনিও।