রাশিয়ার প্রযুক্তি নিরাপত্তা নিয়ে কথা বলছেন পুতিন

রাশিয়ায় চলমান বিদেশী সাইবার হামলা ঠেকাতে প্রযুক্তি নিরাপত্তা জোরদারের নির্দেশ দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। নিরাপত্তা বাড়াতে বিদেশী সফটওয়্যার ও হার্ডওয়্যারের ব্যবহারও কমাতে বলেছেন তিনি।

সাইবার হামলার বিপরীতে নিরাপত্তা জোরদার করার বিষয়টি পুতিন বলেছেন গেল শুক্রবার।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেইনে রাশিয়ার সামরিক আগ্রাসন শুরুর পর থেকেই দেশটির বেশ কয়েকটি রাষ্ট্র-শাসিত প্রতিষ্ঠান ও ওয়েবসাইট হ্যাকিংয়ের চেষ্টা করেছে বিভিন্ন সাইবার আক্রমণকারী।

সামরিক আগ্রাসন বিষয়ে মস্কোর অবস্থানের পুরো বিপরীত তথ্য দেখাতে এসব হ্যাকিং পরিচালিত হয়েছিল বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

“ইন্টারনেটে রাশিয়ার তথ্য অবকাঠামো ব্যবস্থাকে অচল করতে, এসব প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে।” --বলেছেন পুতিন।

পাশাপাশি, দেশটির গণমাধ্যম ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে আক্রমণ নিয়েও কথা বলেছেন তিনি।

“সরকারী সংস্থাগুলোর অফিসিয়াল সাইটে ব্যপকভাবে আক্রমণ চলছে। রাশিয়ার বিভিন্ন নেতৃস্থানীয় প্রতিষ্ঠানের কর্পোরেট নেটওয়ার্কে অবৈধভাবে অনুপ্রবেশের চেষ্টাও বেড়েছে।” --বলেছেন তিনি।

নিজস্ব নিরাপত্তা পরিষদের এক সভায় পুতিন রাশিয়ার মূল খাতগুলোতে তথ্য নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে আরও উন্নত করার কথা বলেছেন। পাশাপাশি, দেশীয় প্রযুক্তি ও সরঞ্জামের ব্যবহারও বাড়াতে বলেছেন তিনি।

“বিদেশী প্রযুক্তি, সফটওয়্যার ও পণ্য ব্যবহারে সীমাবদ্ধতা, রাশিয়ায় নিষেধাজ্ঞা চাপের অন্যতম হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে।” --বলেছেন পুতিন।

“রাশিয়ায় একতরফাভাবে বেশ কয়েকটি পশ্চিমা সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান, নিজেদের পণ্যে প্রযুক্তিগত সুবিধা দেওয়া বন্ধ করেছে।”

তিনি আরও বলেছেন, আপডেটের পরও বিভিন্ন প্রোগ্রাম নিয়মিত ব্লক হওয়ার মতো ঘটনা ঘটছে।

ডেটা ফাঁস

রাষ্ট্রীয় যোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা ‘রসকমনাডজর’ বুধবার এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছে, বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের ব্যক্তিগত ডেটা হাতিয়ে নেওয়া একটি ওয়েবসাইট ব্লক করেছে তারা। তবে, এসব প্রতিষ্ঠানের নাম উল্লেখ করেনি নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি।

রাশিয়ার দ্বিতীয়-বৃহত্তম ব্যাংক ‘ভিটিবি’র কয়েকজন গ্রাহকের ফোন নাম্বার ফাঁস হওয়ার বিষয়টিও উল্লেখ করেছে ‘রসকমনাডজর’। যদিও সেসব গ্রাহকের তহবিল সুরক্ষিত থাকার কথা বলেছে নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি।

অন্যদিকে, ‘রসকমনাডজর’-এর প্রতিবেদনে উঠে আসা ডেটা ফাঁসের বিষয়টি অস্বীকার করেছে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ‘ওয়াইল্ডবেরিস’ ও অনলাইন মার্কেটপ্লেস ‘আভিটো’।

মার্চের শুরুতে টেক জায়ান্ট ইয়ানডেক্স-এর ফুড ডেলিভারি অ্যাপ ‘ইয়ানডেক্সডটএডা’-এর ৫৮ হাজারের বেশি গ্রাহকের ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁস হয়েছিল। অন্যদিকে, ডেটা ফাঁস হওয়ায় শুক্রবার গ্রাহকদের কাছে ক্ষমা চেয়েছে অ্যাপটির প্রতিদ্বন্দ্বী প্রতিষ্ঠান ‘ডেলিভারি ক্লাব’।

“এই ডেটার মধ্যে গ্রাহকের অর্ডারের তথ্য থাকলেও, এতে ব্যাংকের বিস্তারিত কোনো তথ্য নেই। এসব ডেটার বিস্তৃতি রোধে আমরা সর্বাত্মক চেষ্টা করছি।” --প্রতিষ্ঠানটির উদ্ধৃতি প্রতিবেদনে প্রকাশ করেছে সংবাদ সংস্থা ‘তাস’।

মে মাসে হ্যাকারদের আক্রমণে দেশটির ভিডিও প্ল্যাটফর্ম ‘রুটিউব’ তিন দিন অফলাইনে ছিল। এ ছাড়া, নাৎসি জার্মানির বিরুদ্ধে সোভিয়েত ইউনিয়নের ৭৭তম বিজয় দিবসের দিন, মস্কোতে রাশিয়ার স্যাটেলাইট টেলিভিশনের মেনু ওলট পালট করেছিল হ্যাকাররা।

অনেক দিন ধরেই নিজেদের ইন্টারনেট অবকাঠামো উন্নত করতে চাচ্ছে মস্কো। সেই লক্ষ্যে গত গ্রীষ্মে পুরো বৈশ্বিক ইন্টারনেটের সঙ্গে নিজেদের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছিল দেশটি।

ইউক্রেইনে মস্কোর সামরিক আগ্রাসন বাড়ার বিপরীতে, রাশিয়ায় পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞার মাত্রাও বেড়েছে। ফলে, দেশটির প্রযুক্তি ব্যবস্থাও ব্যপক চাপের মুখে পড়েছে বলে প্রতিবেদনে লিখেছে ভার্জ।