নিজের ফেইসবুক অ্যাকাউন্ট মুছে দেবেন যেভাবে

বিশ্বের সবচয়ে বেশি ব্যবহৃত সামাজিক মাধ্যমে আগ্রহ হারিয়ে ফেললে প্ল্যাটফর্মটি থেকে নিজের অ্যাকাউন্ট মুছে দেওয়া যাবে বেশ সহজেই। তবে, সেক্ষেত্রে ফেইসবুক থেকে নিজের সকল ব্যক্তিগত তথ্য ও ফাইল ডাউনলোড করে রাখাই হবে বিচক্ষণের কাজ।

ব্যবহারকারীর প্রাসঙ্গিক সকল তথ্য আর্কাইভ করে জমা রাখে ফেইসবুক। ব্যবহারকারীর ছবি, প্ল্যাটফর্মে ব্যবহারকারী কতোক্ষণ সক্রিয় ছিলেন সে তথ্য, চ্যাট হিস্ট্রি, আইপি অ্যাড্রেস, ফেইশল রিকগনিশন ডেটা এবং ব্যবহারকারী যে সব বিজ্ঞাপনে ক্লিক করেছেন, এমন সকল তথ্য জমা রাখে ফেইসবুক।

অ্যাকাউন্ট মুছে এই তথ্যগুলো হাতের নাগালে এনে রাখাই বিচক্ষণেরণের কাজ বলে মন্তব্য করেছে প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট ভার্জ। এতে ব্যবহারকারীর জীবনে ঘটে যাওয়া নানা গুরুত্বপূর্ণ ঘটনার স্মৃতিচিহ্ন হারিয়ে ফেলার ভয় থাকবে না। এক্ষেত্রে ব্যবহারকারীকে ব্যক্তিগত তথ্যের আর্কাইভটি ডাউনলোড করতে হবে নিচের পদক্ষেপগুলো অনুসরণ করে:

>> উপরের ডান কোণে থাকা অ্যারো বাটনে ক্লিক করুন।

>> সেটিংস অ্যান্ড প্রাইভেসি থেকে সেটিংসে যান (Settings & Privacy > Settings)।

>> স্ক্রিনের বাম দিকে থাকা কলামে ‘ইওর ফেইসবুক ইনফর্মেশন (Your Facebook Information)’-এ ক্লিক করুন।

>> স্ক্রিনে খুলে যাওয়া তালিকার মাঝামাঝি অংশ থেকে ‘ডাউনলোড ইওর ইনফর্মেশন (Download Your Information)’-এর ক্লিক করুন।

>> ডাউনলোড পেইজ থেকে ব্যবহারকারী কোন কোন বিষয়ে তথ্য ডাউনলোড করতে চান সেটি চিহ্নিত করে দিতে পারবেন। চাইলে সব কিছুই ডাউনলোড করা যাবে। পেইজের ওপরের অংশে ‘সিলেক্ট ফাইল অপশন (Select file options)’-এর নিচে ড্রপ ডাউন লিস্ট থেকে ডেটা রেঞ্জ ঠিক করে দিতে হবে ব্যবহারকারীকে। এরপর এইচটিএমএল অথবা জেসন ফরম্যাটে ডেটা ডাউনলোড করা যাবে। এ ছাড়াও ডেটার মান নির্ধারণ করে দিতে পারবেন ব্যবহারকারী।

>> ডাউনলোডের জন্য প্রস্তুত থাকলে পেইজের নিচে ‘রিকোয়েস্ট এ ডাউনলোড (Request a download)’-এ ক্লিক করতে করতে হবে। ফাইল ডাউনলোডের জন্য প্রস্তুত হলে ইমেইল পাবেন ব্যবহারকারী। তবে ফাইল ডাউনলোডের সুযোগ থাকবে মাত্র কয়েক দিন। এক্ষেত্রে ব্যবহারকারী চাইলে ডাউনলোড পেইজে গিয়ে ‘অ্যাভেইলেবল ফাইলস (Available files)’ ট্যাব থেকে ডাউনলোডের জন্য কোন ফাইলগুলো প্রস্তুত হয়েছে তা জেনে নিতে পারবেন।

ছবি: ফেইসবুক থেকে নেওয়া স্ক্রিনশট।

আর্কাইভ ডাউনলোড হওয়ার পর নিজের ফেইসবুক অ্যাকাউন্টটি মুছে দিতে পারেন ব্যবহারকারী। তবে, এক্ষেত্রে মনে রাখতে হবে যে, একবার অ্যাকাউন্ট মুছে দিলে সেটি আর ফেরত পাওয়া যাবে না।

প্রস্তুতি শেষে অ্যাকাউন্ট মুছে দিতে আবার ফেরত যেতে হবে ‘ইওর অ্যাকাউন্ট ইনফর্মেশন’ পেইজে, ক্লিক করতে হবে ‘ডিঅ্যাক্টিভেশন অ্যান্ড ডিলিশন (Deactivation and Deletion)’-এ। এখানে ব্যবহারকারী স্থায়ীভাবে অ্যাকাউন্ট মুছে দিতে চান নাকি অস্থায়ীভাবে অ্যাকাউন্ট বন্ধ রাখতে চান, সেটি নির্ধারণ করে দিতে পারবেন।

অ্যাকাউন্ট স্থায়ীভাবে মুছে দিতে চাইলে ‘ডিলিট অ্যাকাউন্ট (Delete account)’-এ ক্লিক করুন। তারপর ‘কন্টিনিউ টু অ্যাকাউন্ট ডিলিশন (Continue to account deletion)’-এ ক্লিক করুন।

এ পেইজটিতেও অ্যাকাউন্ট স্থায়ীভাবে মুছে দেওয়ার বদলে ডিঅ্যাকটিভ করে রাখার এবং আর্কাইভ ডাউনলোড করার সুযোগ পাবেন ব্যবহারকারী। এ ছাড়াও, গুগল ফটোস, গুগল ডকস এবং ড্রপবক্সের মতো অন্যান্য প্ল্যাটফর্মে নিজের তথ্য সরিয়ে নেওয়ার সুযোগ থাকবে।

‘ডিলিট অ্যাকাউন্ট’-এ একবার ক্লিক করলেই অ্যাকাউন্টটি মুছে দেওয়ার জন্য চিহ্নিত করে রাখবে ফেইসবুক এবং প্ল্যাটফর্মটির অন্যান্য ব্যবহারকারী আর দেখতে পাবেন না অ্যাকাউন্টটি। 

অ্যাকাউন্ট মুছে দেওয়ার অনুরোধ কার্যকর করতে কয়েক দিন সময় নেয় ফেইসবুক। ওই সময়ে মধ্যে ব্যবহারকারী আবার লগ-ইন করলে অ্যাকাউন্ট মুছে দেওয়ার অনুরোধ ফেইসবুক বাতিল হিসেবে বিবেচনা করবে বলে জানিয়েছে ভার্জ।

অ্যাকাউন্ট মুছে দেওয়ার পরও বন্ধুদের ছবিতে কমেন্টের মতো কিছু জিনিস প্ল্যাটফর্মটিতে থেকে যেতে পারে। এ ছাড়াও লগ রেকর্ডসের কপি ফেইসবুকের ডেটাবেইজে থেকে যেতে পারে বলে জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। তবে, ব্যবহারকারীকে চিহ্নিত করার মতো তথ্যের সঙ্গে কোনো সংশ্লিষ্টতা থাকবে না ওই লগ রেকর্ডসের।

ব্যবহারকারীর অকুলাস অ্যাকাউন্ট থাকলে ফেইসবুক অ্যাকাউন্ট মোছার সময় ওই ডিভাইসটির সকল ডেটাও মুছে দেবে ফেইসবুক।