ইউক্রেইনে সামরিক বিমান বিধ্বস্ত, নিহত ২২

ইউক্রেইনে সামরিক বাহিনীর একটি বিমান বিধ্বস্ত হয়ে এর ২২ আরোহী নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছেন দেশটির কর্মকর্তারা।

শুক্রবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যার দিকে উত্তরপূর্ব ইউক্রেইনের একটি মহাসড়কের কাছে আন্তনভ এন-২৬ এয়ারক্রাফটটি বিধ্বস্ত হওয়ার পর সেটিতে আগুনও ধরে গিয়েছিল বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

ইউক্রেইনের সশস্ত্র বাহিনীর জেনারেল স্টাফ রুসলাম খোমচাক জানান, প্রশিক্ষণ চলাকালে অবতরণের চেষ্টা করার সময় বিমানবাহিনীর ক্যাডেটদের বহন করা ওই এয়ারক্রাফটটি বিধ্বস্ত হয়।

দুর্ঘটনায় ২২ আরোহী নিহতের পাশাপাশি দুইজন গুরুতর আহতও হয়েছে বলে বিবৃতিতে জানিয়েছেন তিনি।

ফেইসবুকে ইউক্রেইনের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী আন্তন গেরাশচেঙ্কোর পোস্ট করা একটি ভিডিওতে বিধ্বস্ত বিমানে আগুন এবং রাতের আকাশে ধোঁয়া দেখা গেছে।

দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে তদন্ত শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

খারকিভ অঞ্চলের গভর্নর ওলেক্সি কুচারকে উদ্ধৃত করে ইন্টারফ্যাক্স ইউক্রেইন জানিয়েছে, দুই ইঞ্জিন বিশিষ্ট বিমানটির বামদিকের ইঞ্জিনটি অচল হয়ে পড়েছিল বলে পাইলটদের একজন জানিয়েছিলেন।

বিধ্বস্ত হওয়ার আগে আগে আরোহীদের কয়েকজন বিমানটি থেকে লাফিয়েও পড়েছিলেন বলে প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা গেছে। 

বিমানটি যেখানে দুর্ঘটনায় পড়েছে, সেখান থেকে সামরিক বাহিনীর ব্যবহার করা একটি বিমানবন্দরের দূরত্ব ছিল ২ কিলোমিটারের মতো; দুর্ঘটনার সময় এয়ারক্রাফটটিতে ২৭ আরোহী ছিলেন বলে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে ইউক্রেইনের জরুরি বিভাগ।

বিমানটি প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় পরিচালিত বিমান বাহিনীর খারকিভ বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাডেটদের বহন করছিল। 

“কী পরিস্থিতিতে এ বিপর্যয় ঘটেছিল তা খতিয়ে দেখতে রাষ্ট্রীয় একটি কমিশন গঠন করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে অনুসন্ধান ও উদ্ধার তৎপরতা অব্যাহত আছে,” বলেছে ইউক্রেইনের প্রেসিডেন্ট ভ্লদিমির জেলেনস্কির কার্যালয়।

শনিবার জেলেনস্কি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করতে পারেন বলেও জানিয়েছে তারা।