হংকং: নিরাপত্তা আইনে দোষী সাব্যস্ত তংয়ের ৯ বছরের কারাদণ্ড

হংকংয়ে বিতর্কিত জাতীয় নিরাপত্তা আইনে প্রথম দোষী সাব্যস্ত তং ইং-কিটকে আদালত ৯ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে।

শুক্রবার এ সাজা ঘোষণা করা হয়েছে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড এবং বিচ্ছিন্নতাবাদ উস্কে দেয়ার দায়ে তংকে এ সাজা দেয়া হয়েছে বলে বিচারকরা মন্তব্য করেছেন।

জাতীয় নিরাপত্তা আইনে প্রথম এ সাজা চীন নিয়ন্ত্রিত শহরটিতে গণতন্ত্রপন্থিদের আন্দোলনে বড় ধরনের প্রভাব ফেলবে বলেই মনে করা হচ্ছে।

সড়কে থাকা একদল পুলিশ কর্মকর্তার ওপর মোটরবাইক তুলে দেওয়ার পর গত বছরের জুলাইয়ে ২৪ বছর বয়সী তংকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল।

সেসময় তার কাছে যে কালো রংয়ের পতাকা ছিল, তাতে ‘হংকংকে স্বাধীন করাই আমাদের সময়ের বিপ্লব’ লেখা ছিল।

বিচারিক কার্যক্রম শেষে মঙ্গলবারের রায়ে বিচারকরা তংকে দোষী সাব্যস্ত করলেও তার সাজা ঘোষণা করেননি।

হংকংয়ে জাতীয় নিরাপত্তা আইনে অভিযুক্ত প্রথম ব্যক্তি দোষী সাব্যস্ত  

হংকংয়ের উপর বেইজিংয়ের চাপিয়ে দেওয়া জাতীয় নিরাপত্তা আইনে দোষীদের সর্বোচ্চ যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের সাজা দেওয়ার বিধান রাখা হয়েছে।

কার্যকর হওয়ার পর এখন পর্যন্ত বিতর্কিত এই আইনটির আওতায় হংকংয়ের শতাধিক বাসিন্দাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

আইনটির মাধ্যমে হংকংয়ের স্বায়ত্তশাসন খর্বের পাশাপাশি গণতন্ত্রপন্থি আন্দোলনকারীদের সাজা দেওয়ার পথ তৈরি হয়েছে বলে ভাষ্য সমালোচকদের।

অন্যদিকে বেইজিং বলছে, শহরটির স্থিতিশীলতা আনতেই আইনটি প্রয়োজনীয় হয়ে পড়েছিল।