ওমিক্রন: দক্ষিণ আফ্রিকায় আধিপত্য, পৌঁছেছে যুক্তরাষ্ট্রেও

এ পর্যন্ত দুই ডজন দেশে করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন শনাক্ত হয়েছে। ছবি: রয়টার্স
করোনাভাইরাসের ব্যাপক মিউটেড ধরন ওমিক্রন শনাক্তের চার সপ্তাহের কম সময়ের মধ্যে দক্ষিণ আফ্রিকায় সবচেয়ে আধিপত্য বিস্তারকারী ভ্যারিয়েন্ট হয়ে দাঁড়িয়েছে আর এক রোগী শনাক্তের মধ্য দিয়ে ওমিক্রন ছড়ানো দেশগুলোর তালিকায় যুক্তরাষ্ট্রও যুক্ত হয়েছে।

বুধবার ক্যালিফোর্নিয়ায় যে রোগী শনাক্ত হয়েছে তিনি টিকার সবগুলো ডোজই নিয়েছিলেন। ২২ নভেম্বর দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে যুক্তরাষ্ট্রে ফেরার সাত দিন পর পরীক্ষায় ওমিক্রন পজিটিভ আসে তার।

হোয়াইট হাউসে এক সংবাদ সম্মেলনে যুক্তরাষ্ট্রের সংক্রামক রোগ বিষয়ক শীর্ষ কর্মকর্তা ডা. অ্যান্থনি ফাউচি জানান, ওই ব্যক্তির রোগ লক্ষণ মৃদু এবং তিনি নিজ বাড়িতে কোয়ারেন্টিনে আছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্রের এক চিঠির বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, মঙ্গলবার রাতে যুক্তরাষ্ট্রের এয়ারলাইন্সগুলোকে আফ্রিকা মহাদেশের দক্ষিণাঞ্চলের ওমিক্রন ছড়ানো দেশগুলো থেকে আসা যাত্রীদের নাম হস্তান্তর করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

নতুন এই ভ্যারিয়েন্টটির বিষয়ে মূল প্রশ্নগুলোর উত্তর এখনও অজানা। এ পর্যন্ত স্পেন, কানাডা, ব্রিটেন, অস্ট্রিয়া, পর্তুগালসহ দুই ডজন দেশে এটি ছড়িয়েছে।

পারস্য উপসাগরীয় দেশগুলোর মধ্যে সৌদি আরবের পর দ্বিতীয় দেশ হিসেবে সংযুক্ত আরব আমিরাত বুধবার ওমিক্রনের প্রথম রোগী শনাক্তের কথা জানিয়েছে।

করোনাভাইরাসের আগের ভ্যারিয়েন্টগুলোর চেয়ে ওমিক্রন সম্ভবত লক্ষণীয়ভাবে বেশি সংক্রামক, প্রাথমিক ইঙ্গিতগুলোতে এমন ধারণাই পাওয়া গেছে। এই ভ্যারিয়েন্টটির আবির্ভাবে নতুন বিধিনিষেধ মহামারীর অর্থনৈতি বিপর্যয় থেকে সম্ভাব্য পুনরুদ্ধারের পথ বন্ধ করে দিতে পারে এমন আশঙ্কায় বিশ্বজুড়ে আর্থিক বাজারগুলোতে উদ্বেগ ছড়িয়ে পড়েছে।  

দক্ষিণ আফ্রিকার জাতীয় সংক্রামক রোগ ইনস্টিটিউট (এনআইসিডি) জানিয়েছে, প্রাথমিক এপিডেমিওলজিক্যাল তথ্য থেকে ধারণা পাওয়া গেছে ওমিক্রন কিছু প্রতিরোধ এড়াতে সক্ষম, কিন্তু যে টিকাগুলো আছে তা এখনও গুরুতর রোগ ও মৃত্যুর বিরুদ্ধে সুরক্ষা দিতে পারবে।

গত মাসে তারা যত ভাইরাসের জিনোম সিকোয়েন্সিং করেছে তার ৭৪ শতাংশই নতুন ভ্যারিয়েন্টটি (ওমিক্রন) বলে জানিয়েছে এনআইসিডি।

৮ নভেম্বর দক্ষিণ আফ্রিকার সবচেয়ে জনবহুল প্রদেশ হাওতেং থেকে নেওয়া একটি নমুনায় প্রথম করোনাভাইরাসের নতুন এই ভ্যারিয়েন্টটি শনাক্ত হয়। 

দক্ষিণ আফ্রিকায় মঙ্গলবার যতজন ওমিক্রন রোগী শনাক্ত হয়েছিল পরদিন বুধবার তার দ্বিগুণ সংখ্যক শনাক্ত হয়েছে বলে রয়টার্স জানিয়েছে।  

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) এপিডেমিওলজিস্ট মারিয়া ফান কারকোয়েভা এক ব্রিফিংয়ে জানান, ওমিক্রন কতোটা সংক্রামক এ বিষয়ক তথ্য ‘কয়েকদিনের মধ্যেই’ জানা যেতে পারে। 

ওমিক্রনের বিস্তার ঠেকানোর চেষ্টায় ২৮ নভেম্বর পর্যন্ত বিশ্বের ৫৬টি দেশ ভ্রমণ বিধিনিষেধ আরোপ করছে বলে ডব্লিউএইচও জানিয়েছে।