রাশিয়ায় ‘গুরুতর’ নিষেধাজ্ঞা আরোপের হুমকি ইইউ’র

ইউক্রেইনে হামলা চললে রাশিয়ার ওপর ‘গুরুতর’ অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপের হুমকি দিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)।

ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্ট উরসুলা ভন ডার লিন বলেছেন, “রাশিয়ার ক্রমবর্ধমান আগ্রাসনের মুখে ইইউ ইউক্রেইনকে একলা ছেড়ে দেবে না এবং চুপ করে বসে থাকবে না।”

“ইউরোপ নতুন কোনও হামলার জবাব দেবে গুরুতর অর্থনৈতিক এবং আর্র্থিক নিষেধাজ্ঞা আরোপের মধ্য দিয়ে। ট্রান্সআটলান্টিক সম্প্রদায় এ ব্যাপারে অবিচল।”

“আমরা প্রভাব বলয়ের মধ্যে ইউরোপকে বিভক্ত করার রাশিয়ার চেষ্টা মেনে নেব না। হামলা হলে আমরা প্রস্তুত আছি,” বলেন ভন ডার লিন।

ইউক্রেইন নিয়ে রাশিয়ার সঙ্গে সৃষ্ট উত্তেজনা প্রশমনের কূটনৈতিক চেষ্টায় মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিনকেনের ইউরোপ সফরের মধ্যেই ইইউ এই হুমকি দিল।

শুক্রবার রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভের সঙ্গে জেনেভায় বৈঠক করার কথা রয়েছে ব্লিনকেনের। ইউক্রেইনে আগ্রাসন থেকে রাশিয়াকে বিরত রাখার শেষ মুহূর্তের চেষ্টা হিসাবেই দেখা হচ্ছে এ বৈঠককে।

 তাই এই বৈঠক হওয়ার আগেই পশ্চিমা দেশগুলো ঐক্যবদ্ধ একটি কূটনৈতিক ফ্রন্ট তুলে ধরার চেষ্টা চালাচ্ছে। ব্লিনকেন বুধবার ইউক্রেইনের রাজধানী কিয়েভ সফরের পরদিন বৃহস্পতিবার জার্মানি, ফ্রান্স এবং ব্রিটিশ মন্ত্রীদের সঙ্গে দেখা করেছেন।

ওদিকে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন স্পষ্ট ইঙ্গিত দিয়ে বুধবার বলেছেন, রাশিয়ার হামলা আসন্ন বলেই তার বিশ্বাস। আর তেমন হলে মিত্রদেশগুলোকে সঙ্গে নিয়ে রাশিয়াকে উপযুক্ত জবাব দেওয়া হবে বলেও হুঁশিয়ার করেছেন তিনি।

বাইডেন এবং অন্যান্য পশ্চিমা দেশগুলোর নেতারা ইউক্রেইনে হামলা চললে রাশিয়ার ওপর মারাত্মক অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপের হুমকি দিয়েছেন। রাশিয়া ২০১৪ সালে ইউক্রেইনের ক্রিমিয়া উপদ্বীপ দখলের পর থেকেই নিষেধাজ্ঞার মুখে আছে।

তবে নতুন নিষেধাজ্ঞার হুমকি রাশিয়া উড়িয়ে দিয়েছে। বৃহস্পতিবার ক্রেমলিন বলেছে, রাশিয়ার বিপর্যয়কর পরিণতি ভোগ করার যে হুমকি যুক্তরাষ্ট্র দিয়েছে তাতে ইউক্রেইন নিয়ে উত্তেজনা কমবে না বরং তা পরিস্থিতিকে আরও অস্থিতিশীল করে তুলতে পারে।

আরও পড়ুন:

ইউক্রেইনে আগ্রাসন চালালে রাশিয়া ‘বিপর্যয়’ দেখবে: বাইডেন  

ইউক্রেইন সফরে ব্লিনকেন, শিগগিরই নতুন রুশ হামলা নিয়ে সতর্কবার্তা  

আরও পড়ুন