ঘানার খনি এলাকায় বিশাল বিস্ফোরণে ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত, বহু নিহত

ঘানার পশ্চিমাঞ্চলীয় খনি এলাকায় বিশাল এক বিস্ফোরণে কয়েকশ ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়ে অজ্ঞাত সংখ্যক বাসিন্দা নিহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার স্থানীয় গ্রামীণ এলাকায় একটি সোনার খনির বিস্ফোরকবাহী ট্রাকের সঙ্গে মোটরসাইকেলের সংঘর্ষের পর বিস্ফোরণের এ ঘটনা ঘটে, জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

স্থানীয় গণমাধ্যমে পোস্ট করা ভিডিওগুলোতে বিস্ফোরণে বিধ্বস্ত একটি বিশাল, ধূমায়িত এলাকা দেখা গেছে, সেখানে ভবনগুলো ইট, কাঠ ও দুমড়ে যাওয়া রডের স্তূপে পরিণত হয়েছে।

একটি ভিডিওতে মাটিতে পড়ে থাকা ছিন্নভিন্ন দুটি মৃতদেহ দেখা গেছে, সেগুলো ধুলোয় ঢাকা ছিল। স্থানীয় কাউন্সিলের এক সদস্যের শেয়ার করা একটি ছবিতে বিস্ফোরণস্থলে গভীর একটি গর্ত দেখা গেছে, এর কিনারে দাঁড়িয়ে লোকজন ভেতরে উঁকি দিচ্ছে।

ঘানার জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সংস্থার উপ-মহাপরিচালক সেজি সাজি আমেদোনু জানিয়েছেন, ৫০০ ভবন ধ্বংস হয়ে গেছে। জরুরি বিভাগের আঞ্চলিক এক কর্মকর্তা স্থানীয় গণমাধ্যমকে বলেছেন, তিনি ১০টি মৃতদেহ দেখেছেন।     

এক বিবৃতিতে পুলিশ বলেছে, “উদ্ধারকাজ শুরু করা হচ্ছে, তাই লোকজনকে তাদের নিরাপত্তার জন্য এলাকাটি ছেড়ে নিকটবর্তী শহরে চলে যাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।”

পুলিশ জানিয়েছে, এলাকাটির জীবিত বাসিন্দাদের আশ্রয় দিতে নিকটবর্তী শহরগুলোর স্কুল ও গির্জাসহ জনসাধারণের ব্যবহৃত স্থাপনাগুলো খুলে দিতে বলা হয়েছে।

বগোসো ও বাউদি শহরের মধ্যবর্তী আপিয়াতে এলাকায় বিস্ফোরণের ঘটনাটি ঘটেছে। বিস্ফোরক নিয়ে একটি ট্রাক স্থানীয় চিরানো সোনার খনিতে যাওয়ার সময় একটি মোটরসাইকেলকে চাপা দেওয়ার পরই বিস্ফোরণ ঘটে। 

কানাডার টরোন্টোভিত্তিক কোম্পানি কিনরোস এ খনিটি পরিচালনা করে। কিনরোসের মুখপাত্র ঘটনাটির কথা নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, চিরানো খনি থেকে ১৪০ কিলোমিটার দূরে বিস্ফোরণটি ঘটেছে।

ঘানার প্রেসিডেন্ট নানা আকুফো-আদ্দো এক টুইটে জানিয়েছেন, ঘটনাটির বিষয়ে তাকে অবহিত করা হয়েছে এবং সেখানে মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। নিহতদের জন্য শোক প্রকাশ করে তাদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন তিনি। 

''  

আরও পড়ুন