রংপুরে ‘জিনের বাদশা নামে প্রতারণা’, গ্রেপ্তার ৩

জিনের বাদশা নামে প্রতারণার অভিযোগে মিরাজুল হাসান ওরফে মিরাজ, মুরাদ খান ওরফে ইঞ্জিনিয়ার মুরাদ ও শাহিনকে গ্রেপ্তার করা হয়
‘বিপুল পরিমাণ টাকা পাইয়ে দেওয়ার কথা বলে’ অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে রংপুরে তিন ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শনিবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানান রংপুর মহানগর পুলিশের সহকারী কমিশনার (ডিবি এন্ড মিডিয়া) আলতাফ হোসেন।

শুক্রবার রাতে রংপুর মেডিকেল ক্যাম্পাস এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয় বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

গ্রেপ্তাররা হলেন রংপুর নগরীর আমাশু কুকরুল এলাকার সাইফুল ইসলামের ছেলে মিরাজুল হাসান ওরফে মিরাজ (৩০), ইসলামবাগ আরকে রোডের মৃত মকবুল খানের ছেলে মুরাদ খান ওরফে ইঞ্জিনিয়ার মুরাদ (৪২) ও ঢাকার দারুসসালামের লালকুঠি এলাকার মৃত আব্দুল মজিদের ছেলে শাহিন (৩০)।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, অল্প সময়ের মধ্যে এক হাজার ছয়শত কোটি টাকা মূল্যের স্বর্ণের বার কিংবা প্রাচীন পিলারের নিচে থাকা ইউরেনিয়াম দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে আব্দুল গোফফার প্রধান (৬১) নামের একজন অবসরপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষকের পরিবারের কাছ থেকে ৪০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয় এই তিনজন।

পরবর্তীতে তারা ওই শিক্ষককে অপহরণ করে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এ ঘটনায় ওই ব্যক্তি মামলা করার পর শুক্রবার নগরীর রংপুর মেডিকেল ক্যাম্পাস এলাকায় অভিযার চালানো হয়। এ সময় গ্রেপ্তারদের কাছ থেকে তিনটি একশ টাকা মূল্যমানের নন-জুডিশিয়াল স্ট্যাম্প, একটি মোটরসাইকেল ও একটি পিতলের কলস উদ্ধার করা হয়।