পদ্মা সেতু: রইল বাকি এক

পদ্মাসেতুর ৪০ তম স্প্যান স্থাপনের মধ্য দিয়ে ছয় কিলোমিটার দৃশ্যমান হয়েছে; আর একটি বসলেই দৃশ্যমান হবে মূল কাঠামোর পুরোটা।

শুক্রবার সকাল ১০টা ৫৮ মিনিটে মাওয়া প্রান্তের ১১ ও ১২ নম্বর খুঁটির ওপর ৪০তম স্প্যানটি বসানো হয় বলে পদ্মা সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী (মূলসেতু) দেওয়ান মো. আব্দুর কাদের জানান।

এ সেতুর ৪২টি খুঁটির ওপর ৪১টি স্প্যান বসানো হবে। এরই মধ্যে জাজিরা প্রান্তে ২০টি এবং মাওয়া প্রান্তে ১৯টি স্প্যান বসানো হয়েছে । আর একটি স্প্যান বসেছে মাওয়া ও জাজিরা প্রান্তের মাঝখানে। এখন আর একটি স্প্যান বসানো বাকি রয়েছে।

আব্দুর কাদের বলেন, “এর আগে বৃহস্পতিবার ৪০ তম স্প্যানটি ১১ ও ১২ নম্বর খুঁটির কাছে পজিশনিং করা হয়েছিল। ফলে সকালে অল্প সময়ের মধ্যেই স্প্যানটি স্থাপন করা সম্ভব হয়েছে।

পদ্মাসেতুর ৪০তম স্প্যান স্থাপনের মধ্য দিয়ে শুক্রবার ছয় কিলোমিটার দৃশ্যমান হয়েছে; আর একটি স্প্যান বসলেই দৃশ্যমান হবে মূল কাঠামোর পুরোটা। ছবি: মোস্তাফিজুর রহমান

“এখন আর একটি স্প্যান বসানো বাকি; বিজয় দিবসের আগেই ১৫০ মিটার দীর্ঘ ৪১ তম স্প্যান বসানোর মধ্য দিয়ে স্বপ্নের পদ্মা সেতু পুরোটাই দৃশ্যমান হবে।“

শেষ ৪১তম স্প্যানটি ১৫ ডিসেম্বরের মধ্যে সেতুর ১২ ও ১৩ নম্বর পিলারের ওপর বসানো হবে বলে জানান এ প্রকৌশলী।

৩০ হাজার কোটি টাকার সেতুর ওপর দিয়ে একই সঙ্গে ট্রেনও চলবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাহসিকতায় নিজস্ব অর্থায়নে ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হয়।

মূলসেতু নির্মাণের জন্য কাজ করছে চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি (এমবিইসি) ও নদী শাসনের কাজ করছে চীনের ‘সিনো হাইড্রো করপোরেশন’।

দেশের দীর্ঘতম এই সেতুর নির্মাণকাজ ২০২১ সালের ৩০ জুনের মধ্যে শেষ করার লক্ষ্য রয়েছে