বিনা মূল্যে পিঠা খাওয়াবেন চাঁদপুরের লিটন

চাঁদপুর শহরের পিঠা বিক্রেতা লিটন ব্যাপারি তার ব্যবসার ২০ বছর পূর্তি উপলক্ষে সবাইকে বিনা মূ্ল্যে পিঠা খাওয়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন।

মুখে দাওয়াত দেওয়ার পাশাপাশি তিনি একটা ব্যানারও সেঁটে দিয়েছেন তার পিঠা তৈরির ঝুপড়ি দোকানে।

লিটন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “আমার কাছে যারা নিয়মিত পিঠা কিনতে আসেন, শুধু তাদের না, বৃহস্পতিবার যারাই আসবেন তারা সবাই বিনামূল্যে পিঠা খেতে পাবেন।”

শহরের প্রাণকেন্দ্র কালীবাড়ি আদালত স্টেশন এলাকায় রেললাইনের পাশে একটি দোকানে পিঠা বানিয়ে বিক্রি করেন ৪৭ বছর বয়সী লিটন।

এই আয় দিয়েই চলে তার সংসার। শহরের মমিনপাড়া এলাকায় স্ত্রী ও তিন মেয়ে নিয়ে তার সংসার। পিঠা বিক্রির আয় দিয়ে তিন তার মেয়েকে স্কুল-কলেজে পড়াশোনা করাচ্ছেন বলে তিনি জানান।

লিটন বলেন, আগে শহরের পালবাজারে দৈনিক ১০০ টাকা মজুরিতে কাঁচামালের আড়তে কাজ করতেন। ২০০১ সাল থেকে তিনি সেই কাজ ছেড়ে পিঠা বিক্রি শুরু করেন। ২০২১ সালে ২১ জানুয়ারি তার পিঠা বিক্রির ২০ বছর পূর্ণ হবে।

“এই খুশিতে আমি সবাইকে ফ্রিতে পিঠা খাওয়াতে চাই।”

লিটনের এই উদ্যোগে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন এলাকার অনেকে।

ওই এলাকার দোকানি আবদুল মান্নান গাজী বলেন, “লিটন ভাই দীর্ঘ সময় ধরে এই এলাকায় পিঠা বিক্রি করে আসছেন। আমার মত অনেকেই প্রতিদিন তার দোকানে আসে পিঠা খেতে। তার পিঠা অত্যন্ত সুস্বাদু। মানুষ হিসেবেও লিটন ভাই অত্যন্ত ভাল।”

লিটন আগে ভাঁপা পিঠা তৈরি করলেও বর্তমানে শুধু চিতই পিঠাই তৈরি করেন যা প্রতিটি পাঁচ টাকায় বিক্রি হয়।

লিটন বলেন, অতিথিদের জন্য চিতই পিঠার সঙ্গে থাকছে শুঁটকি ও শরিষাসহ চার রকমের ভর্তা। বিকেল ৪টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত অতিথিদের জন্য পিঠা বানাবেন তিনি।