বাগেরহাটে যুবকের চোখ খুঁচিয়ে নষ্টের চেষ্টা

বাগেরহাটের শরণখোলায় এক যুবকের দুই চোখ খুঁচিয়ে রক্তাক্ত করেছে অজ্ঞাত হামলাকারীরা।

শরণখোলা থানার ওসি মো. সাইদুর রহমান বলেন, রোববার ভোরে উপজেলার মঠেরপাড় গ্রামে একটি মাঠ থেকে দুচোখ রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে।

তাকে শরণখোলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

মোল্লা সাইফুল ইসলাম (৪০) নামের এই যুবক শরণখোলার খোন্তাকাটা ইউনিয়নের রাজৈর গ্রামের মোল্লা আব্দুল কাদের ওরফে নুরু মোল্লার ছেলে।

সাইফুলের বিরুদ্ধে শরণখোলা থানায় ছিনতাই, চুরি, মাদক ব্যবসাসহ বিভিন্ন অভিযোগে ১২টি মামলা রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

শরণখোলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) এস এম ফয়সাল আহমেদ বলেন, সকাল ৮টা ২০ মিনিটের দিকে সাইফুলকে হাসপাতালে আনা হয়।

“তার দুই চোখ ক্ষতবিক্ষত। চোখ দিয়ে প্রচুর রক্তক্ষরণ হচ্ছিল। চোখ খুঁচিয়ে দেওয়া হয়েছে; আঘাত গুরুতর। তাছাড়া তার পায়ে ফোলা জখম রয়েছে।”

তিনি প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, “তার চোখ নষ্ট বা পা ভেঙেছে কিনা তা পরীক্ষা-নিরীক্ষার পরই বলা যাবে।”

শরণখোলা থানার ওসি মো. সাইদুর রহমান বলেন, রোববার ভোর রাতের দিকে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা সাইফুলকে মারধর করে দুই চোখ খুঁচিয়ে রক্তাক্ত করে ফসলের মাঠে ফেলে যায়। পরে স্থানীয় ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীর হোসেন তালুকদার তাকে উদ্ধার করে শরণখোলা হাসপাতালে ভর্তি করেন।

“সাইফুলের বিরুদ্ধে শরণখোলা থানায় ছিনতাই, চুরি, মাদকসহ বিভিন্ন অভিযোগে ১২টি মামলা রয়েছে। সাইফুল চিহ্নিত অপরাধী।”

তার সাথে আরও সঙ্গী থাকে; সেই সঙ্গীদের সাথে বিরোধে জের ধরে এই ঘটনা ঘটেছে কিনা তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে বলে ওসি জানান।