চুয়াডাঙ্গায় কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে আটক ৬

চুয়াডাঙ্গা শহরে এক কিশোরীকে ধর্ষণের পর ছবি তুলে ফাঁদে ফেলার অভিযোগে ছয়জনকে আটক করেছে পুলিশ।

ধর্ষণ, পর্নগ্রাফি ও চাঁদাবাজির মামলা দায়েরের পর শহরের কেদারগঞ্জ এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয় বলে সদর থানার ওসি আবু জিহাদ মোহাম্মদ ফখরুল আলম খান জানান।

আটক প্রধান আসামি হলেন- শহরের কেদারগঞ্জ পাড়ার গোলাম হোসেনের ছেলে জুবাইর হোসেন জিম (১৮)। অন্যরা তার বন্ধু। তাদের বাড়ি একই এলাকায়।

ওসি আলম মামলার নথির বরাতে বলেন, আট মাস আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পৌর এলাকার সাদেক আলী মল্লিক পাড়ার এক কিশোরীর (১৪) সঙ্গে জিমের পরিচয় হয়। তাদের বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে। ২৫ মার্চ জিম ফুঁসলিয়ে কিশোরীকে মহিলা কলেজপাড়ার একটি বাড়িতে নিয়ে কয়েকজন বন্ধুসহ ধর্ষণ করেন এবং ছবি তুলে রাখেন।

ওসি বলেন, ওই ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে জিম ও তার বন্ধুরা কিশোরীর কাছ থেকে ১৬ হাজার টাকা ও কিছু সোনার গয়না হাতিয়ে নিয়েছেন। তারা আরও টাকা দাবি করে আসছিলেন। পরে কিশোরীর বাবা পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ করেন। পুলিশ অভিযান চালিয়ে ছয়জনকে আটক করে।

মামলার আরও ছয় আসামিকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলে জানান ওসি আবু জিহাদ মোহাম্মদ ফখরুল আলম খান।