একুশে পদকপ্রাপ্ত শিল্পী জুলহাসউদ্দীন নেই

একুশে পদকপ্রাপ্ত সঙ্গীত শিল্পী ওস্তাদ জুলহাসউদ্দীন আহমেদ আর নেই।

শুক্রবার দুপুর দেড়টার দিকে মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার বাড়ৈখালীর নিজ বাড়িতে ৮৮ বছর বয়সে চিরকুমার ও আজন্ম দৃষ্টিহীন এই নজরুল সঙ্গীত সাধক শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

বাদ মাগরিব স্থানীয় মসজিদে নামাজে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে চিরনিদ্রায় শায়িত করা হয় বল শ্রীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রণব কুমার ঘোষ জানান।

প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে একুশে পদক নিচ্ছেন জুলহাসউদ্দীন আহমেদ

জুলহাসউদ্দীন আহমেদ ১৯৩৩ সালের ১০ নভেম্বর মুন্সীগঞ্জ জেলার শ্রীনগর উপজেলার বাড়ৈখালী গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা ইয়ার আলী বেপারি ও মা হাসনা বেগম। পাঁচ ভাই ও চার বোনের মধ্যে জুলহাসউদ্দীন সর্বকনিষ্ঠ।

সঙ্গীতে বিশেষ অবদানের জন্য তিনি ২০১৭ সালে একুশে পদক লাভ করেছিলেন। এছাড়াও তিনি নজরুল স্বর্ণপদক, নাছিরউদ্দিন স্বর্ণপদক, শিল্পকলা একাডেমির সংবর্ধনা, বুলবুল একাডেমির সংবর্ধনা, রবীন্দ্র সঙ্গীত শিল্পী সংস্থার সংবর্ধনা, এবি ব্যাংক-চ্যানেল আই আজীবন সম্মাননাসহ নানা পুরস্কার ও সম্মাননায় ভূষিত হয়েছেন।

রাজশাহীতে একটি সঙ্গীত প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকার করে তিনি স্বর্ণপদকসহ ‘সুর সাগর’ উপাধি লাভ করেন।