চাঁদপুরে সংঘর্ষের ঘটনায় আটক ৭

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলায় বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে চারজন গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হওয়ার ঘটনায় অজ্ঞাত দুই হাজার আসামির বিরুদ্ধে তিনটি মামলায় হয়েছে। তাছাড়া সাতজনকে আটক করেছে পুলিশ।

চাঁদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হাজীগঞ্জ-ফরিদগঞ্জ সার্কেল) মো. সোহেল মাহমুদ জানান, হামলা ও পুলিশ আহত হওয়ার ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে হাজীগঞ্জ থানায় পুলিশ দুটি মামলা করেছে। এছাড়া রাজারগাঁও ইউনিয়নের মুকন্দসার গ্রামে হামলা ও মন্দির ভাঙার অভিযোগে মন্দির কর্তৃপক্ষ একটি মামলা দায়ের করেছে।

তিনি বলেন, “হাজীগঞ্জ উপজেলায় মোট ১২টি পূজামণ্ডপ ভাংচুর হয়েছে। সব ঘটনায় এ পর্যন্ত সাতজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।”

সিসিটিভি ফুটেজ দেখে আসামিদের শনাক্ত করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন হাজীগঞ্জ থানার ওসি হারুনুর রশিদ।

কুমিল্লার ঘটনার জেরে বুধবার চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ বাজারে লক্ষ্মীনারায়ণ জিওর আখড়া মন্দিরে হামলা ও ভাংচুর হয়। হামলাকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হলে গুলিবিদ্ধ হয়ে চারজন নিহত হয়।

বুধবার সকালে কুমিল্লা শহরের একটি মন্দিরে কুরআন অবমাননার কথিত অভিযোগ তুলে চাঁদপুর, মাদারীপুরসহ বিভিন্ন এলাকায় বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়।