মেয়েকে ডাক্তার দেখানো হল না: ইজিবাইকে ওড়না পেঁচিয়ে শিক্ষিকার মৃত্যু

প্রতীকী ছবি
তিন বছরের শিশুকন্যাকে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যাওয়ার পথে গোপালগঞ্জে ইজিবাইকে ওড়না পেঁচিয়ে শুল্কা রানী সেন (৩৪) নামে এক স্কুল শিক্ষিকার মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার বিকালে মুকসুদপুর - বরইতলা সড়কের মহারাজপুরে দুর্ঘটনাটি ঘটে।

নিহত শুল্কা রানী লোহাইড় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষিকা। তিনি ফরিদপুরের মধুখালী উপজেলার যাদপুর গ্রামের প্রবীর দাসের স্ত্রী।

নিহত শিক্ষিকা মুকসুদপুর উপজেলার বণগ্রামে বাবার বাড়িতে থেকে পাশের গ্রামের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করতেন।

মুকসুদপুর থানার ওসি মোঃ আবু বকর মিয়া   জানান, ওই শিক্ষিকা বিকাল তিনটার দিকে তার শিশুকন্যা তৃপ্তিকে (৩) ডাক্তার দেখাতে ইজিবাইকে করে বণগ্রাম থেকে মুকসুদপুরে যাচ্ছিলেন।

অসাবধানবসত তার ওড়না ইজিবাইকের চাকার সঙ্গে পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস লাগলে শ্বাসরোধ হয়ে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয় বলে স্থানীয়দের ধারণা বলে তিনি উল্লেখ করেন।

ওসি জানান, অচেতন অবস্থায় স্থানীয়রা তাকে মুকসুদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

পরিবারের আবেদনের প্রেক্ষিতে ওই শিক্ষিকার মরদেহ রাত ১১টার দিকে ময়নাতদন্ত ছাড়াই পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে বলে তিনি জানান।