উখিয়ায় রোহিঙ্গা শিবিরে আগুনে পুড়ল ২৯ ঘর

কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গা শিবিরে সাত দিনের ব্যাবধানে আবার অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

সোমবার রাত ২টার দিকে উখিয়ার ইরানী পাহাড়ের ৫ নম্বর ক্যাম্পে লাগা এ আগুনে ২৯টি বসত ঘর পুড়ে গেছে বলে ১৪ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক পুলিশ সুপার নাইমুল হক জানান।

নাইমুল বলেন, “আগুন লাগার পর তা ক্যাম্পের মেইন ব্লক-বি, সাব ব্লক বি-৩ ও ব্লক ডি-৩ তে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে উখিয়া ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট গিয়ে এক ঘণ্টা চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। কিন্তু ততক্ষণে সাব ব্লক-বি/৩ এর ২৫টি এবং ডি/২ এর ৪টি ঘর সম্পূর্ণ পুড়ে যায়।”

আগুনে কেউ হতাহত হয়নি বলে জানালেও অগ্নিকাণ্ডের কারণ তাৎক্ষণিভাবে জানাতে পারেননি এপিবিএন অধিনায়ক।

তিনি বলেন, “আগুন লাগার কারণ জানতে সংশ্লিষ্টরা খোঁজ-খবর নিচ্ছেন।”

মিয়ানমার থেকে নিপীড়নের মুখে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা ১১ লাখের বেশি রোহিঙ্গার অধিকাংশই থাকে সীমান্ত জেলা টেকনাফ ও উখিয়া উপজেলার বিভিন্ন ক্যাম্পে ছোট ছোট ঘরে গাদাগাদি করে।

তারই একটি পালংখালী ইউনিয়নের শফিউল্লাহ কাটা এলাকার ১৬ নম্বর রোহিঙ্গা শিবিরে গত ৯ জানুয়ারি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এতে প্রায় ৬০০টি ঘর পুড়ে চার হাজারের বেশি মানুষ আশ্রয় হারিয়েছেন বলে অতিরিক্ত শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার মো. সামছু-দৌজা নয়ন জানিয়েছেন।