মাস্ক না পরায় শেরপুরে দোকানি ও পথচারীদের জরিমানা

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের মধ্যে মাস্ক পরিধান না করায় শেরপুরে দোকানি ও পথচারীদের জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। 

অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট তোফায়েল আহমেদ গণমাধ্যমকে বলেন, সরকারের ১১ দফা নির্দেশনা কার্যকর করতে শেরপুর জেলা প্রশাসন এই ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালনা করেছে। এতে মাস্ক পরিধান না করার দায়ে সদর ও নকলা উপজেলায় ২০টি মামলায় সাত হাজার ৬০০ টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এর মধ্যে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রয়েল সাংমার নেতৃত্বে শহরের কলেজ মোড় ও খোয়ারপাড় মোড়ে মঙ্গলবার বিকেলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের পরিচালনা করা হয়। এ সময় মাস্ক পরিধান না করায় চারটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের মালিককে দুই হাজার টাকা জরিমানা এবং তাদের সর্তক করা হয়।

জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান ও পথচারীদের মাঝে মাস্ক বিতরণও করা হয়।

একইদিন বিকালে সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তনিমা আফ্রাদ শহরের বিভিন্ন স্থানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে আটটি মামলায় দোকানি ও পথচারীকে এক হাজার ৭০০ টাকা জরিমানা করেন।

বিকেল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তামারা তাসবিহা শহরের নারায়ণপুর ও শেখহাটি বাজারে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালনা করে চারটি মামলায় এক হাজার ৭০০ টাকা জরিমানা করেন।

এ ছাড়া একই দিন নকলা উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কাউসার আহম্মেদ নকলা পৌর শহরের বিভিন্ন স্থানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে চারটি মামলায় দুই হাজার ২০০ টাকা জরিমানা করেন।

এসব জরিমানার টাকা তাৎক্ষণিকভাবে আদায় করা হয় বলেও জানান অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট তোফায়েল আহমেদ। 

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার সময় জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের পেশকার মো. হেলাল উদ্দিন, মো. নজরুল ইসলাম, সদর থানার সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) আয়েস উদ্দিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।