ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ‘১৫ কিলোমিটার’ যানজট

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লা অংশে অন্তত ১৫ কিলোমিটার জুড়ে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।

জেলার বুড়িচং উপজেলার নিমসার থেকে চান্দিনা পর্যন্ত বৃহস্পতিবার বিকাল সাড়ে ৪টা থেকে এই জট দেখা দেয় বলে ময়নামতি হাইওয়ে থানার ওসি বেলাল উদ্দিন জাহাঙ্গীর জানান।

ওসি বলেন, “বিকালে মহাসড়কের একাংশ বন্ধ করে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর রাস্তা মেরামতের কাজ করায় এই জট সৃষ্টি হয়। রাত সাড়ে ৮টার দিকে একটু কমতে শুরু করে।”

পুলিশের দুটি দল যানজট নিরসনে কাজ করছে বলে তিনি জানান।

তবে দুটি সড়ক দুর্ঘটনার জন্য বেশি জট লাগে বলে কুমিল্লা সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী রেজা-ই-রাব্বি জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, এখন শুষ্ক মৌসুম হওয়ায় সড়ক মেরামতের কাজ এগিয়ে নিতে হচ্ছে। এ জন্য এক লেন দিয়ে গাড়ি চলছে। এছাড়া নিমসারে দুটি দুর্ঘটনা ঘটার কারণে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।

রাত পৌনে ১১টার দিকেও ওই এলাকার কোথাও কোথাও অল্প অল্প যানজট দেখা গেছে বলে যাত্রীরা জানিয়েছেন।

যানজটে আটকে পড়া যাত্রীরা তাদের ভোগান্তির কথা বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানিয়েছেন।

নিজেকে আবুল কালাম নামে পরিচয় দিয়ে এক ব্যক্তি বলেন, কুমিল্লা থেকে দুপুরে ঢাকা যাওয়ার জন্য রওনা হন তিনি। নিমসার ও চান্দিনা এলাকায় দুই ঘণ্টার বেশি যানজটে আটকা পড়ে থাকেন।

ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষায় অংশ নিতে কুমিল্লা থেকে ঢাকার উদ্দেশে যাত্রা করা তৈয়বুর রহমান নামে এক ব্যক্তি বলেন, বিকাল ৩টায় কুমিল্লা থেকে ঢাকার উদ্দেশে বাসে ওঠেন তিনি। সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত চান্দিনায় আটকে ছিলেন।

“সড়কে দীর্ঘ যানজট এবং গাড়ির চাপ অনেক বেশি। 

ঢাকা থেকে কুমিল্লার উদ্দেশে রওনা হওয়া আমান উল্লা আমান নামে এক ব্যক্তি বলেন, বিকাল ৫টায় চান্দিনা এসে যানজটে আটকা পড়েন তিনি।

“এক লেন দিয়ে গাড়ি চলছে। প্রায় ২ ঘণ্টা যানজটে পড়ে পরিবার নিয়ে চরম দুর্ভোগে পড়তে হয়েছে।”