শার্শায় কিশোরকে হত্যা করে ইজিবাইক ‘ছিনতাই’, গ্রেপ্তার ৩

যশোরের শার্শা উপজেলায় চালককে হত্যা করে ইজিবাইক ছিনতাইয়ের ঘটনায় তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

পিবিআই যশোর জেলা ইউনিটের ইনচার্জ পুলিশ সুপার রেশমা শারমিন জানান, বুধবার রাতে যশোর কেন্দ্রীয় কারাগার ও চৌগাছা উপজেলার মাড়ুয়া বাজার থেকে তিনজনকে গ্রেপ্তার করেন তারা।

এরা হলেন- যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার চান্দেরপোল গ্রামের মনিরুল ইসলাম (৩০), যশোর বাঘাপাড়া গ্রামের মেহেদী হাসান মিলন (২২) ও চৌগাছা উপজেলার মাড়ুয়া গ্রামের সাইফুল ইসলাম (৩০)।

এর আগে মঙ্গলবার দুপুরে শার্শার উপজেলার ধলদাহ-বড়বাড়িয়া সড়কের ধলদাহ গ্রামের রফিকের কুলবাগান থেকে ১৪ বছরের কিশোর সাকলাইন ওরফে সোলায়মান সাকিবের হাতবাঁধা রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করে পলিশ।

সাকিব নানাবাড়ি থেকে ইজিবাইক চালাত বলে শার্শা থানার ওসি বদরুল আলম খান জানিয়েছিলেন।

লাশ উদ্ধারের পর তার নানা আকবর আলী সাংবাদিকদের জানান, সাকিব ইজিবাইক নিয়ে সোমবার দুপুরের পর বাড়ি থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হয়। তারপর সারারাত খোঁজাখুজি করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

নাতির লাশ উদ্ধারের পর শার্শা থানায় অজ্ঞাত পরিচয় আসামিদের নামে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন তিনি।

পিবিআই কর্মকর্তা রেশমা বলেন, “গ্রেপ্তাররা পেশাদার ছিনতাইকারী। তারা যাত্রী বেশে সাকিবের ইজিবাইকে ওঠে। পরে তারা পরিকল্পিতভাবে তাকে হত্যার পর ইজিবাইক নিয়ে পালিয়ে যায়।”

গ্রেপ্তারদের মধ্যে সাইফুলের দেওয়া তথ্যে চৌগাছা বাজার এলাকার ছুটিপুর রোডে নুরুজ্জামান ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কসপ থেকে সাইফুলের ইজিবাইকটি উদ্ধার করা হয় বলে জানান তিনি।