কুমিল্লা বোর্ড: প্রথমে ফেল, পুনঃনিরীক্ষণে জিপিএ-৫

কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডে ২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষার ফলাফল পুনঃনিরীক্ষণে আগে ফেল করা ছয় শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ পেয়েছেন।

শুক্রবার প্রকাশিত পুনঃনিরীক্ষণের ফলাফলে আবেদনকারীদের মধ্যে ৮২ জনের ফল পরিবর্তন হয়েছে বলে জানিয়েছেন কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডের উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (মাধ্যমিক) মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম।

শুক্রবার সন্ধ্যায় তিনি জানান, ২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের মধ্যে গ্রুপ ভিত্তিক নৈর্বাচনিক ১১ বিষয়ে চার হাজার ১৯৩ জন শিক্ষার্থী তাদের চার হাজার ৬৭৯টি উত্তরপত্র পুনঃনিরীক্ষণের জন্য অনলাইনে আবেদন করেছিলেন।

“আবেদনকারীদের মধ্যে ৮২ জনের ফল পরিবর্তন হয়। এর মধ্যে ৫১ জন ফেল থেকে পাশ করেছেন। আর ফেল থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছেন ছয় জন। এছাড়া ২৫ জনের গ্রেড পরিবর্তন হয়েছে।”

ফল পরিবর্তন হওয়া শিক্ষার্থীরা ২২ ও ২৩ জানুয়ারি কলেজে ভর্তির জন্য অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন বলে জানান তিনি।

গত ৩০ ডিসেম্বর ২০২১ সনের এসএসসি পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়। ৩১ ডিসেম্বর থেকে ৬ জানুয়ারি পর্যন্ত পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন গ্রহণ করা হয়। ৩০ ডিসেম্বর প্রকাশিত ফলাফলে দেখা যায় পাসের হার ছিল ৯৬.২৭ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৪ হাজার ৬২৬ জন শিক্ষার্থী।

ওইদিন কুমিল্লা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মো. আসাদুজ্জামান জানিয়েছেন, কুমিল্লা বোর্ডে দুই লাখ ১৯ হাজার ৭০৪ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে। এর মধ্যে পাস করে দুই লাখ ১১ হাজার ৫০৩ জন। মোট পরীক্ষার্থীর মধ্যে ছেলে পরীক্ষার্থী ৯৫ হাজার ৮৮৯ জন আর মেয়ে পরীক্ষার্থী এক লাখ ২৩ হাজার ৮১৫ জন। ছেলের তুলনায় মেয়ে বেশি ২৭ হাজার ৯২৬ জন। মোট ১ হাজার ৭৫৫ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শতভাগ পাশ করেছে ৩৫৫টিতে।

গত বছরের ১৪ নভেম্বর সারাদেশে একযোগে এ পাবলিক পরীক্ষা শুরু হয়। করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে দীর্ঘদিন শ্রেণিতে পাঠদান না হওয়ায় সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে অনুষ্ঠিত হয় এ বছরের পরীক্ষা। আবশ্যিক বিষয়ে এই বছর পরীক্ষা হয়নি। শিক্ষার্থীরা শুধু নৈর্বাচনিক তিনটি বিষয়ের পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছে। কুমিল্লা, চাঁদপুর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর ও ফেনী জেলা রয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড, কুমিল্লার অধীন।