কক্সবাজারে সালিশে হামলায় যুবক নিহত

কক্সবাজারের চকরিয়ায় জমির বিরোধের একটি সালিশ বৈঠকে হামলায় একজন নিহত ও চারজন আহত হয়েছেন।

রোববার দুপুরে উপজেলার বদরখালী ইউনিয়নের 'বদরখালী সমবায় সমিতি' কার্যালয়ের সামনে এ ঘটনা ঘটে বলে চকরিয়া থানার ওসি মো. ওসমান গনি জানান।

নিহত জয়নাল আবেদীন ওরফে বদন (৪০) বদরখালীর ঠুটিয়াখালী পাড়ার প্রয়াত আব্দুস সোবহানের ছেলে।

আহতদের তিনজনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আহতরা নিহতের স্বজন বলে জানা গেলেও তাদের নাম ও পরিচয় জানা যায়নি।

স্থানীয়দের বরাতে ওসমান গনি বলেন, বদরখালীতে স্থানীয় বাসিন্দা দুই ভাই আব্দুস সোবহান ও আব্দুল জলিলের সন্তানদের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলছিল। এ নিয়ে রোববার দুপুরে বদরখালী সমবায় সমিতি কার্যালয়ে এক সালিশ বৈঠকে উভয়পক্ষকে ডাকা হয়।

“এতে উভয়পক্ষের লোকজন উপস্থিত হয়। এক পর্যায়ে সমিতির কার্যালয়ের সামনে তাদের মধ্যে তর্কাতর্কি শুরু হয়। এক পর্যায়ে দুপক্ষ দেশীয় ধারালো অস্ত্র ও লাঠিসোটা নিয়ে সংর্ঘষে জড়িয়ে পড়ে।”

ওসি বলেন, সংঘর্ষের মধ্যে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে জয়নাল আবেদীন ওরফে বদন ঘটনাস্থলে নিহত এবং চার জন আহত হন। আহতদের স্থানীয়রা উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। তাদের মধ্যে তিন জনের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানোর পরামর্শ দেন।

ওসি আরও জানান, খবর পেয়ে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে। তার আগেই হামলার ঘটনায় জড়িতরা পালিয়ে যাওয়ায় কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি। ঘটনায় জড়িতদের শনাক্ত করে গ্রেপ্তারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে জানান ওসমান গনি।