দিনাজপুরের রেস্তোরাঁয় কিশোরের গলাকাটা মরদেহ

প্রতীকী ছবি
দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলায় রেস্তোরাঁ থেকে এক কিশোরের গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

নিহত রিসান মিয়া (১৫) উপজেলার কশিগাড়ি পাঁচমাথা এলাকার লিটন মণ্ডলের ছেলে।

উপজেলার রানীগঞ্জ বাজারের একটি খাবার হোটেলে শুক্রবার রাতে তাকে হত্যা করা হয় বলে ঘোড়াঘাট থানার ওসি আবু হাসান কবির জানান।

নিহত রিসানের মা অমিছা বেগম বলেন, শুক্রবার রাতে তার ছেলে বাসায় ফিরতে দেরি হওয়ায় তার সঙ্গে রাত ১০টার দিকে মোবাইল ফোনে কথা হয়। সে একটু দেরিতে বাড়িতে ফিরতে চেয়েছিল। কিন্তু আর ফেরেনি। শনিবার সকালে এলাকাবাসীর কাছে তার মৃত্যুর খবর পান।

“সেখানে গিয়ে ছেলের গলাকাটা মরদেহ দেখতে পাই।”

রিসান রানীগঞ্জ বাজারের গরুহাটে একটি রেস্তোরাঁয় সপ্তাহে দুই দিন কাজ করত বলে তিনি জানান।

খোলামেলা হোটেলটির ওপরে টিনের চাল থাকলেও বেড়া নেই। সপ্তাহের বৃহস্পতিবার ও সোমবার এই দুই দিন গরুর হাট বসে এবং এই দুই দিন হোটেলটি খোলা থাকে বলে পুলিশ জানিয়েছে। 

ওসি কবির বলেন, সকালে স্থানীয় লোকদের মাধ্যমে খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করে।

“শুক্রবার রাতে তাকে হত্যা করা হয়েছে। পুলিশ খুনি ধরতে চেষ্টা করছে।”

মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে জানান ওসি কবির।