২৬ মে ২০১৯, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

‘নিশ্চিত পরাজয় জেনে’ সন্ত্রাসে বিএনপি: আ. লীগ

  • নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2018-12-30 14:03:23 BdST

bdnews24

ভোটের মাঠে প্রত্যাখ্যাত হয়ে নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে বিএনপি-জামায়াত সন্ত্রাস ও মিথ্যাচারের লিপ্ত হয়েছে বলে অভিযোগ করেছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ।

রোববার সকাল ১১টার দিকে ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন, “বিএনপি-জামায়াত জোট নির্বাচনে নিশ্চিত পরাজয় বুঝতে পেরে সন্ত্রাস ও সহিংসতার পথ বেছে নিয়েছে। নির্বাচনের আগের রাতেই বিএনপি-জামায়াত সন্ত্রাসীদের হামলায় পাঁচজন আওয়ামী লীগ নেতাকর্মী নিহত হয়েছেন।”

এর আগে সকাল ৯টায় ভোট দেওয়ার পর সারাদেশে ভোটের পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন।

তিনি সাংবাদিকদের বলেছিলেন, “মিনিটে মিনিটে টেলিফোন কল আসছে যে, ‘কামাল ভাই আমাদের এখানে রাতেই হয়ে গেছে, সন্ধ্যার পর থেকে শুরু হয়ে গেল।’ এগুলো আমার পকেটে ভর্তি। জায়গায় জায়গায় যে খবরগুলো পাচ্ছি, এটা উদ্বেগজনক। এগুলো খুবই দুঃখজনক, লজ্জ্বাজনক।”

এভাবে ভোটকেন্দ্র দখল ও ভোট দিতে বাধা দেওয়াকে একাত্তরের শহীদ ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সঙ্গে ‘বেঈমানি’ করা হিসাবে অভিহিত করেন গণফোরাম সভাপতি।

এর জবাবে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নানক বলেন, “ড. কামাল হোসেনের মতো প্রবীণ ব্যক্তি ও কীভাবে এ মিথ্যাচার করছেন। তিনি বিএনপির এজেন্ট না থাকার কথা বলেছেন। সাতটি আসনে উচ্চ আদালতের রায়ে প্রার্থিতা বাতিল হওয়ায় বিএনপির এজেন্ট না থাকারই কথা।”

তিনি বলেন, “বাংলাদেশের কোন নির্বাচনী এলাকায় বিএনপির প্রার্থী অথবা তাদের এজেন্টের উপর জোর-জবরদস্তি করা হয়েছে এমন কথা কেউ বলতে পারবে কি?

“সাংবিধানিকভাবে নির্বাচনে অযোগ্য, যুদ্ধাপরাধী, বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতার খুনি পরিবারসহ এবং একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলার ঘটনায় সাজাপ্রাপ্ত আসামিদের পরিবার এবং জঙ্গিবাদের প্রতিষ্ঠাতা-পৃষ্ঠপোষকদের মনোনয়ন দিয়ে বিএনপির দেউলিয়াত্ব প্রকাশিত হয়েছে।”

ভয়-ভীতি উপেক্ষা করে জনগণকে ভোট উৎসবে অংশ নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে নানক বলেন, “জনগণ বিএনপির ডাকে কোন সাড়া দেয়নি। বিএনপি-জামায়াত জোট জনগণের দ্বারা প্রত্যখ্যাত হয় নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণায় নামতে পারেনি।”

আওয়ামী লীগ নেতা নানকের দাবি, সারা দেশে অত্যন্ত উৎসবমুখর পরিবেশে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। ভোটাররা নির্বিঘ্নে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটকেন্দ্রে গিয়ে ভোট উৎসবে শামিল হয়েছেন।

“গণমানুষের কল্যাণে আওয়ামী লীগের অবদান ও সাফল্যের কারণে নৌকার পক্ষে ব্যাপক গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রতি অকুণ্ঠ সমর্থন দিয়ে বাংলাদেশের জনগণ স্বতঃস্ফূর্তভাবে আওয়ামী লীগের পক্ষে অবস্থান করছে।”

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন ও বিএম মোজাম্মেল হক, উপ-দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া উপস্থিত ছিলেন।

কোন নির্বাচনে
কোন আসনে কার অবস্থান কী