পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

‘বাবরকে বাদ দিয়ে ওয়ার্নারকে সেরা করা অন্যায় সিদ্ধান্ত’

  • স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-11-15 16:04:49 BdST

অস্ট্রেলিয়ার প্রথম টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখা ডেভিড ওয়ার্নারের টুর্নামেন্ট সেরা হওয়া কিছুতেই মানতে পারছেন না শোয়েব আখতার। পাকিস্তানের সাবেক তারকা পেসারের মতে, আসরের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক বাবর আজমের সঙ্গে অন্যায় করা হয়েছে।

দুবাই ইন্টারন্যাশনাল স্টেডিয়ামে রোববার ৮ উইকেটে জয় পায় অস্ট্রেলিয়া। ওয়ার্নারের অর্ধশতকের পর মিচেল মার্শের ম্যাচজয়ী ৭৭ রানের বিধ্বংসী ইনিংসে ভর করে ৭ উইকেট হাতে রেখে নিউ জিল্যান্ডের ১৭২ রান ছাড়িয়ে যায় তারা। এই সংস্করণে এটি অস্ট্রেলিয়ার প্রথম বৈশ্বিক শিরোপা।

সেমি-ফাইনালে পাকিস্তানের বিপক্ষেও ৩০ বলে ৪৯ রানের গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেছিলেন ওয়ার্নার। বিশ্বকাপের আগে কিছুটা রান খরায় থাকা বাঁহাতি এই ওপেনার টুর্নামেন্ট শুরু হতেই যেন কক্ষপথে ফেরেন। ব্যাট হাতে দলকে সামনে থেকে পথ দেখান এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। সব মিলিয়ে ৭ ম্যাচে ৪৮.১৬ গড় ও ১৪৬.৮২ স্ট্রাইক রেটে ২৮৯ রান করে ‘ম্যান অব দা টুর্নামেন্ট’ পুরস্কার জিতেছেন তিনি।

শোয়েবের মতে, পুরস্কারটি একমাত্র যোগ্য দাবিদার পাকিস্তান অধিনায়ক। ৬ ম্যাচে চার ফিফটিতে ১২৬.২৫ স্ট্রাইক রেটে ৩০৩ রান করেছেন বাবর। গড়টাও ঈর্ষণীয়, ৬০.৬০।

ফাইনাল দেখতে মাঠে এসেছিলেন শোয়েব। ম্যাচ শেষে টুইটারে বাবরের টুর্নামেন্টের সেরা খেলোয়াড় না হওয়াতে হতাশা প্রকাশ করেন তিনি।

“আমি সত্যিই বাবর আজমের ম্যান অব দা টুর্নামেন্ট হওয়ার অপেক্ষায় ছিলাম। নিশ্চিতভাবেই এটা অন্যায় সিদ্ধান্ত।”

ধারাবাহিক পারফরম্যান্সে সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার জয়ের পাশাপাশি একটি রেকর্ড গড়েছেন ওয়ার্নার; টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের এক আসরে অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যানদের মধ্যে সর্বাধিক রানের তালিকায় এখন শীর্ষে তিনি। পেছনে ফেলেছেন সাবেক ওপেনার ম্যাথু হেইডেনকে। ২০০৭ সালের প্রথম আসরে ২৬৫ রান করেছিলেন তিনি।

২০১০ সালে ইংল্যান্ডের কেভিন পিটারসেনের পর দ্বিতীয় খেলোয়াড় হিসেবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয়ী দল থেকে ম্যান অব দা টুর্নামেন্টের পুরস্কার জিতলেন ওয়ার্নার।