পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

বাজেট সহায়তায় ২৫ কোটি ডলার ‘দিতে পারে’ বিশ্ব ব্যাংক

  • আবদুর রহিম হারমাছি, লিমা (পেরু) থেকে, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2015-10-11 16:06:45 BdST

bdnews24
বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে সাক্ষাৎকার দিচ্ছেন আবুল মাল আবদুল মুহিত

পঞ্চাশ কোটি নয়, বিশ্ব ব্যাংক শেষ পর্যন্ত বাজেট সহায়তা বাবদ বাংলাদেশকে ২৫ কোটি ডলার দিতে পারে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

অবশ্য বিশ্ব ব্যাংকের সহযোগী সংস্থা আইএফসির ১ বিলিয়ন ডলারের ‘টাকা বন্ড’ ছাড়ার ব্যাপারে কোনো সমস্যা নেই বলে জানিয়েছেন তিনি।

শনিবার পেরুর রাজধানী লিমায় বিশ্ব ব্যাংক-আইএমএফের বার্ষিক সম্মেলনের দ্বিতীয় দিন বিশ্ব ব্যাংকের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট আর কাইল পিটার্সের সঙ্গে এক বৈঠকের পর অর্থমন্ত্রী বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডকমকে এ কথা জানান।

তিনি বলেন, “আমরা তাদের কাছে ৫০০ মিলিয়ন ডলার চেয়েছিলাম। তারা অতো দিতে পারবে না। ম্যাক্সিমাম ২৫০ মিলিয়ন ডলার দিতে পারে।”

গত বছর অক্টোবরে যুক্তরাষ্ট্রে বিশ্ব ব্যাংক-আইএমএফের বার্ষিক সম্মেলনে চলতি ২০১৫-১৬ অর্থবছরের জন্য বাজেট সহায়তা নিয়ে আলোচনার সূত্রপাত হয়। সে সময় বাংলাদেশ বিশ্ব ব্যাংকের কাছে ৫০ কোটি ডলার বাজেট সহায়তা চেয়েছিল।

এর ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ সরকার এবং বিশ্ব ব্যাংক কর্মকর্তাদের কয়েক দফা বৈঠকও হয়। গত মাসে বিশ্ব ব্যাংকের দক্ষিণ এশিয়া বিভাগের ভাইস প্রেসিডেন্ট অ্যানেট ডিক্সনের ঢাকা সফরের সময়ও বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়। শনিবারের বৈঠকে ডিক্সনও উপস্থিত ছিলেন।

মুহিত বলেন, “বিশ্ব ব্যাংক দীর্ঘদিন পর আমাদের বাজেট সহায়তা দিতে চাচ্ছে; আমরাও আগ্রহ দেখিয়েছি। আশা করছি সেটা পাব এবং চলতি অর্থবছরেই তা ব্যবহার করতে পারব।”

বিশ্ব ব্যাংক বাংলাদেশের বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পে অর্থায়ন করলেও ২০০৮ সালের পর থেকে কোনো বাজেট সহায়তা দেয়নি।

বাজেট সহায়তার সুবিধা সম্পর্কে মুহিত বলেন, “এই সাপোর্টের তেমন কোনো শর্ত থাকে না। সরকার বাজেটের মাধ্যমে যে কোনো খাতে এই অর্থ খরচ করতে পারে।”

তিনি জানান, আইএফসি বাংলাদেশে এক বিলিয়ন ডলারের ‘টাকা বন্ড’ ছাড়ার বিষয়ে ইতোমধ্যে কাজ শুরু করেছে। তিন বছর মেয়াদী এই বন্ডের অর্থ বিনিয়োগ হবে অবকাঠামো খাতে।

বৈঠকে মুহিত ‘বাংলাদেশ সম্পর্কে স্পষ্ট ধারণা আছে’ এমন কাউকে এ দেশে বিশ্ব ব্যাংকের নতুন ‘কান্ট্রি ডিরেক্টর’ হিসেবে নিয়োগ দিতে শীর্ষ কর্মকর্তাদের অনুরোধ করেন।

বাংলাদেশে এই পদে দায়িত্ব পালন করে আসা ইউহানেস জাটের মেয়াদ ইতোমধ্যে শেষ হয়ে গেছে। নভেম্বরে নতুন কাউকে নিয়োগ দেবে বিশ্ব ব্যাংক।

বিশ্ব ব্যাংক-আইএমএফ সম্মেলনে বাংলাদেশের ১২ সদস্যের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন মুহিত। প্রতিনিধিদলের অন্য সদস্যরা হলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আতিউর রহমান, ওয়াশিংটনে বিশ্ব ব্যাংকের বিকল্প নির্বাহী পরিচালক মোহাম্মদ তারেক, অর্থসচিব মাহবুব আহমেদ এবং অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সচিব মোহাম্মদ মেজবাহউদ্দীন এবং সংসদ সদস্য সাগুফতা ইয়াসমিন এমিলি।

বিশ্বের আর্থিক খাতের দুই মোড়লের এই বার্ষিক সম্মেলনে ১৮৮টি সদস্য দেশের অর্থমন্ত্রী এবং কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর ছাড়াও বেসরকারি খাতের নির্বাহী এবং সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা অংশ নিচ্ছেন।