পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

বিশ্ব ব্যাংককে ধন্যবাদ মুহিতের

  • আবদুর রহিম হারমাছি,  বালি (ইন্দোনেশিয়া) থেকে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2018-10-13 09:42:25 BdST

bdnews24

বাংলাদেশের উন্নয়নে সহায়তা অব্যাহত রাখায় বিশ্ব ব্যাংককে ধন্যবাদ জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

মিয়ানমার থেকে আসা ১০ লাখ রোহিঙ্গা পুনর্বাসনে সংস্থাটি দীর্ঘমেয়াদে বাংলাদেশের পাশে থাকবে বলেও আশা প্রকাশ করেছেন তিনি।

ইন্দোনেশিয়ার বালি দ্বীপের ওয়েস্টিন হোটেলে বিশ্ব ব্যাংক-আইএমএফের সম্মেলনের চতুর্থ দিন শনিবার বিশ্ব ব্যাংক প্রধান জিম ইয়ং কিমের সঙ্গে একান্ত বৈঠক করেন মুহিত।

সকালে বিশ্ব ব্যাংক প্রধানের সঙ্গে বৈঠকের মধ্য দিয়ে শুরু হয় সম্মেলনে অংশ নেওয়া বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের প্রধান মুহিতের দিনের কার্যক্রম।

বৈঠকের ‍শুরুতেই মুহিত বিশ্ব ব্যাংক প্রেসিডেন্ট জিম ইয়ং কিমকে স্বাগত জানান। এরপর তিনি দীর্ঘদিন ধরে বাংলাদেশের উন্নয়নে ঋণ-সহায়তা দিয়ে অবদান রাখার জন্য বিশ্ব ব্যাংক প্রধানকে ধন্যবাদ জানান।

এ সময় মুহিত রোহিঙ্গাদের সহায়তায় শুরু থেকেই এগিয়ে আসার জন্য জিম ইয়ং কিমকে ধন্যবাদ জানিয়ে দীর্ঘমেয়াদে এই অসহায় মানুষগুলোর পুনর্বাসনে সহায়তা অব্যাহত রাখার অনুরোধ জানান।

বৈঠকের শুরুতে বাংলাদেশের সাংবাদিকদের ছবি তোলার সুযোগ দেওয়া হয়। এরপর বিশ্ব ব্যাংক প্রধান এবং বাংলাদেশের অর্থমন্ত্রী একান্ত বৈঠক করেন।

বৈঠক শেষে বিশ্ব ব্যাংক প্রেসিডেন্ট সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেননি। অন্য একটি বৈঠকে চলে যান বাংলাদেশের অর্থমন্ত্রীও। তিনি বলেছেন, বৈঠকের বিষয় পরে তিনি সাংবাদিকদের জানাবেন।

বৈঠকে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর  ফজলে কবির, বিশ্ব ব্যাংকে বাংলাদেশের বিকল্প নির্বাহী পরিচালক মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া, অর্থ সচিব আব্দুর রউফ তালুকদার, অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সচিব কাজী শফিকুল আযম।

বৃহস্পতিবার বিশ্ব ব্যাংকের সাউথ এশিয়ান অঞ্চলের ভাইস প্রেসিডেন্ট হার্টভিং শেফারের সঙ্গে বৈঠক শেষে মুহিত বলেছিলেন, বিশ্ব ব্যাংকের কাছ থেকে বাড়তি ২০০ কোটি (২ বিলিয়ন) ডলার বিলিয়ন ঋণ-সহায়তা  পাওয়া যেতে পারে।

বিশ্ব ব্যাংক তিন বছরে (২০১৭-১৮ থেকে ২০১৯-২০) বাংলাদেশকে ৪ দশমিক ৫ বিলিয়ন ডলার সহায়তা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল।

মুহিত বলেছিলেন, “আমরা দুই বছরেই সেই টাকা শেষ করে ফেলেছি। অর্থাৎ দুই বছরেই তিন বছরের টাকা খরচ করেছি। এখন আমরা তাদের কাছ থেকে বাকি এক বছরের জন্য আরও ৪ দশমিক ৫ বিলিয়ন ডলার চেয়েছি। তারা আমাদের বাড়তি সহায়তা দিতে রাজি হয়েছে।”

বিশ্ব ব্যাংক আফ্রিকার দেশগুলোকে সহায়তার যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল, তার অনেক টাকা অব্যবহৃত রয়েছে জানিয়ে  তা থেকে ২ বিলিয়ন ডলার আশা করছেন মুহিত।

বিশ্ব ব্যাংক-আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল আইএমএফের সদস্য ১৮৯ দেশের প্রায় ১৫ হাজার প্রতিনিধি এসেছেন বালিতে। ১৫ অক্টোবর সোমবার শেষ হবে এই সম্মেলন।

প্রতিবছর অক্টোবর মাসের প্রথম ভাগে বিশ্ব ব্যাংক-আইএমএফের এই সভা হয়। পর পর দুটি বৈঠক যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিতে সংস্থা দুটির সদর দপ্তরে হওয়ার পর তৃতীয় সভাটি হয় যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে সদস্যভুক্ত অন্য কোনো দেশে।