২৫ মার্চ ২০১৯, ১১ চৈত্র ১৪২৫

প্রথমার মাসরুরের বইয়ে ‘প্রতারণার শিকার’ হাসান আজিজুল হক

  •  নিউজ ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-02-21 16:03:02 BdST

bdnews24
অধ্যাপক হাসান আজিজুল হক

প্রথমা প্রকাশন থেকে প্রকাশিত মাসরুর আরেফিনের ‘আগস্ট আবছায়া’ উপন্যাসে প্রতারণা করে হাসান আজিজুল হকের একটি মন্তব্য জুড়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

খ্যাতিমান এই কথাসাহিত্যিক অভিযোগ করেছেন, ওই বইয়ের ফ্ল্যাপে একটি মন্তব্য লেখার জন্য তাকে অর্থের প্রলোভনও দেখানো হয়েছিল, কিন্তু তিনি না করে দেওয়ার পর ‘ভুয়া’ একটি মন্তব্য তার নামে চালিয়ে দেওয়া হয়েছে।

বিষয়টি প্রতারণার শামিল দাবি করে ‘বানোয়াট’ মন্তব্যটি প্রত্যাহার করে ‘আগস্ট অবছায়া’ বইটির মলাট নতুনভাবে ও সংশোধিত আকারে প্রকাশ করতে প্রথমার প্রকাশককে অনুরোধ জানিয়েছেন অধ্যাপক হাসান আজিজুল হক।

প্রথমা প্রকাশন মতিউর রহমান সম্পাদিত বাংলা দৈনিক প্রথম আলোর একটি সহযোগী প্রতিষ্ঠান। ‘আগস্ট আবছায়া’ বইটির লেখক মাসরুর বেসরকারি সিটি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি)।

এবারের বইমেলায় প্রথমা থেকে বেরিয়েছে মাসরুরের বইটি; এ নিয়ে ব্যাপক প্রচার-প্রচারণাও চালানো হচ্ছে।

প্রকাশিত বইটির ফ্ল্যাপে রয়েছে হাসান আজিজুল হকের এই মন্তব্য

প্রকাশিত বইটির ফ্ল্যাপে রয়েছে হাসান আজিজুল হকের এই মন্তব্য

এর মধ্যেই প্রতারিত হওয়ার অভিযোগ তুলে বৃহস্পতিবার একটি বিবৃতি পাঠান রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক একুশে পদকজয়ী কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হক।

তিনি লিখেছেন, মাসরুর আরেফিন সপ্তাহ খানেক আগে তার সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করে উপন্যাসটির একটি পাণ্ডুলিপি তাকে দেখাতে চান। তিনি তাতে সায় দিয়ে পাণ্ডুলিপিটি পাঠাতে বলেছিলেন।

“কিন্তু স্পাইরাল-বাইন্ডিং করা সেই সাড়ে তিনশ পৃষ্ঠার পাণ্ডুলিপি আমার কাছে আসার পর শুরু হল এক নতুন বিপত্তি, মাসরুর বারবার আমাকে টেলিফোন করে তার সেই উপন্যাসের জন্য দ্রুততম সময়ে একটি ‘ফ্ল্যাপ’ বা শংসাবচন লিখে দিতে বলে। শুধু সে নিজে ফোন করেই ক্ষান্ত হয়নি, সাংবাদিক মারুফ রায়হানকে দিয়েও বারবার টেলিফোন করাতে থাকে।

“এমনকি এক সময় সে এই ফ্ল্যাপটুকু লেখা বাবদ আমার ব্যাংক একাউন্টে ৩০ হাজার টাকা পাঠিয়ে দেওয়ার প্রস্তাবও দেয়, কিন্তু আমি সে প্রস্তাব তখনই প্রত্যাখ্যান করি।”

পাণ্ডুলিপিটি কিছু অংশ পড়ার কথা জানিয়ে হাসান আজিজুল হক বলেন, “তার ওই ওই পাণ্ডুলিপি নাড়াচাড়া করে তা আদৌ উপন্যাস নাকি নানাবিদ বিদেশি গ্রন্থের সারের বমনমাত্র- তা আমার কাছে স্পষ্ট হয়নি।”

মাসরুর আরেফিন

মাসরুর আরেফিন

এরপর মারুফ রায়হানের ‘অনবরত’ টেলিফোন পাওয়ার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, “উপায়ন্তর না দেখে আমি পরে একদিন টেলিফোনে ভদ্রতার খাতিরে তাকে উপন্যাস সম্পর্কে দু-চারটি কথা বলি নেহাতই অনানুষ্ঠানিকভাবে।

“কিন্তু এখন দেখছি যে সে আমার নামে মনগড়া কথা বানিয়ে তা ওই বইয়ের পেছন-মলাটে বসিয়ে দিয়েছে।”

বইয়ের প্রচারে ব্যানার, পোস্টার, বিলবোর্ডেও তার নামে ভুয়া বক্তব্যটি প্রচার করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন হাসান আজিজুল হক।

“আমার সারল্য ও স্নেহের সুযোগ নিয়ে তারা আমার মানহানি ঘটিয়েছে এবং আমার সঙ্গে স্পষ্টই প্রতারণা করেছে,” বলেন তিনি।

হাসান আজিজুল হকের বিবৃতি পাওয়ার পর বৃহস্পতিবার বিকালে মাসরুর আরেফিনের সঙ্গে কথা বলতে তার দুটি মোবাইল নম্বরে একাধিকবার কল করা হলেও তা বন্ধ পাওয়া যায়।

মাসরুরের উপন্যাসটি মহিবুল আলমের ‘তালপাতার পুথি’ উপন্যাস থেকে নকল করা হয়েছে অভিযোগ তুলে ফেইসবুকে লেখালেখি চলছে।