রোজায় ইনকাম একটু কম করলে কী হয়, বিআরটিসিকর্মীদের কাদের

  • নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-05-26 15:17:27 BdST

bdnews24

রাষ্ট্রায়ত্ত পরিবহন সংস্থা বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশনের (বিআরটিসি) কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দুর্নীতি-অনিয়ম না করার বিষয়ে হুঁশিয়ার করে দিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

রোববার দুপুরে সংস্থার ঈদের বিশেষ সেবা নিয়ে এক পর্যালোচনা ও মতিবিনিময় সভায় তিনি বিআরটিসির হারানো সুনাম পুনরুদ্ধারে পরিচ্ছন্নভাবে কাজ করার আহ্বান জানান।

রাষ্ট্রীয় পরিবহন সংস্থাটিকে বাঁচিয়ে রাখতে সরকার বিভিন্ন সময় পদক্ষেপ নিয়েছে; পুরনো বাসের বহরে প্রায়ই যুক্ত হয় নতুন যানবাহন। তারপরও বিভিন্ন সময় লোকসানের কথা শোনা যায়।

লোকসানের কারণে বেতনভাতা বকেয়া হয়ে পড়ায় বছরের শুরুর দিকে বিআরটিসির চালক ও শ্রমিকদের ধর্মঘটে সংস্থায় অচলাবস্থাও তৈরি হয়েছিল।   

ওই ধর্মঘটের পর একবার বিআরটিসির কার্যালয়ে গিয়ে সংস্থার ‘অনিয়ম-দুর্নীতি’ নিয়ে ক্ষোভ ঝেড়েছিলেন ওবায়দুল কাদের।

দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তারা কিভাবে কত আয় করেন তা অবগত থাকার কথা জানিয়ে সে সময় তিনি ওইসব কর্মকর্তাদের সরিয়ে দিতে সংস্থার চেয়ারম্যানকে নির্দেশও দিয়েছিলেন।

রোববার ফের তিনি বিআরটিসির কর্মকর্তাদের সতর্ক করে বলেন, “বিআরটিসি দেউলিয়া হলে আপনারা এখানে যারা আছেন, তারাও দেউলিয়া হবেন।”

তিনি বলেন, “রমজান মাস সংযমের মাস, এই মাসে ইনকামটা একটু কম করলে কী হয়? বিআরটিসি যেন সুনামের ধারায় ফিরে আসে, সেদিক বিবেচনা করে নতুন দৃষ্টান্ত স্থাপন করুন।

“সৎভাবে, পরিচ্ছন্নভাবে বিআরটিসিকে পরিচালনা করলে জনগণের সামনে সুনাম অক্ষুন্ন থাকবে। এখন বিআরটিসির সেই সুনাম নেই। এবার আগের বিআরটিসির বাসগুলোর সঙ্গে নতুন ২৫৩টি বাস যুক্ত হওয়ায় আপনারা নতুন শপথ করুন, বিআরটিসিকে আকর্ষণীয় করতে হবে।”

এবারের ঈদযাত্রা আরামদায়ক ও স্বস্তির করতে বিআরটিসির ১১৪২টি বাস যাত্রী পরিবহন করবে বলেও জানান তিনি।

ঈদযাত্রাকে স্বস্তিদায়ক করতে মন্ত্রণালয়ের নেওয়া বিভিন্ন পদক্ষেপের কথাও তুলে ধরেন সড়ক পরিবহনমন্ত্রী।