২৪ আগস্ট ২০১৯, ৯ ভাদ্র ১৪২৬

হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগী কমেছে

  • নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-08-13 17:38:56 BdST

bdnews24
একই হাসপাতালে আরিবা তাছনিম ডেঙ্গু নিয়ে এসেছে শুক্রবার। ইনজেকশন ও সেলাইন পুশ করার ভয়ে বাবা-মা ও নানী ছাড়া কাউকে কাছে ঘেঁষতে দিতে চায় না। পছন্দের তিনটি খেলনা নিয়ে সময় কাটছে তার। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

মশাবাহিত রোগ ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে ঈদের দিন সারা দেশে ১২০০ নতুন রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন, যা আগের দিনের চেয়ে ৪৩ শতাংশ কম।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলছেন, সাধারণ মানুষ ডেঙ্গু নিয়ে ‘সচেতন হয়ে ওঠায়’ নতুন রোগীর সংখ্যা দ্রুত কমছে।

তবে এক দিনের সংখ্যার ভিত্তিতে ডেঙ্গুর প্রকোপ নিয়ে সুনির্দিষ্ট কিছু বলতে চান না স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের  রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার কর্মকর্তারা। 

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমারজেন্সি অ্যান্ড অপারেশনস সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের তথ্য অনুযায়ী, সোমবার সকাল ৮টা থেকে মঙ্গলবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশে ১ হাজার ২০০ জন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন, যা আগের ২৪ ঘণ্টায় ছিল ২ হাজার ৯৩ জন।

সব মিলিয়ে এ বছর ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪৪ হাজার ৪৭১ জন; এর মধ্যে চলতি অগাস্ট মাসের প্রথম ১২ দিনেই ২৬ হাজার ১০ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা মহানগরের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন মোট ৫৯৯ জন ডেঙ্গু রোগী, আগের দিন এই সংখ্যা ছিল ৮৪২ জন।

ঢাকার মত ঢাকার বাইরেও নতুন রোগীর সংখ্যা আগের দিনের তুলনায় কমেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় এ রোগ নিয়ে ঢাকা মহানগরের বাইরে সারা দেশে বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন মোট ৬০১ জন, আগের দিন এই সংখ্যা ছিল ১ হাজার ২৫১ জন।

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের পরিস্থিতি দেখতে গিয়ে এ বিষয়ে কথা বলেন।

তিনি বলেন, মোট ৭ হাজার ৫৪৭ জন ডেঙ্গু রোগী এখন সারাদেশে বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি আছেন, যা আগের দিন ছিল ৮ হাজার ৬ জন।

“সারাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় যেভাবে হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগীদের ভর্তি সংখ্যা কমে যাচ্ছে তার বড় কৃতিত্ব হচ্ছে দেশের সাধারণ মানুষের ডেঙ্গু সচেতনতা বৃদ্ধি পাওয়া।

“পাশাপাশি স্বাস্থ্যখাতে কর্মরত ডাক্তার, নার্সসহ সকলেই পরিবারের সাথে ঈদের আনন্দের কথা বাদ দিয়ে যেভাবে রোগীদের সেবা করছেন তার জন্য স্বাস্থ্য খাতের সকলেই প্রশংসনীয় কাজ করেছেন।"

তবে এ বিষয়ে প্রশ্নের জবাবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার পরিচালক অধ্যাপক সানিয়া তাহমিনা সাংবাদিকদের বলেছেন, ঈদের ছুটির কারণে রোগী ভর্তি কমেছে, নাকি প্রকোপ কমে এসেছে- তা বলার সময় এখনো আসেনি। এখনই কোনো মন্তব্য করলে তা বিজ্ঞানসম্মত হবে না।

সরকারি হিসেবে এপ্রিলে ৫৮ জন, মে মাসে ১৯৩ জন, জুনে ১৮৮৪ জন ডেঙ্গু নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। জুলাই মাসে তা এক লাফে ১৬ হাজার ২৫৩ জনে পৌঁছায়। আর অগাস্টের প্রথম ১২ দিনেই হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ২৬ হাজারের বেশি মানুষ।

সরকার চলতি বছর ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে ৪০ জনের মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করা হলেও ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতাল ও জেলার চিকিৎসকদের কাছ থেকে অন্তত ১২১ জনের তথ্য পেয়েছে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী মঙ্গলবার ঢাকার ৪০টি সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি আছেন ৪ হাজার ১১৫ জন ডেঙ্গু রোগী। আর দেশের বাকি এলাকায় বিভিন্ন হাসপাতালে মোট ৩ হাজার ৪৩২ জন ভর্তি আছেন।

গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রাম বিভাগের জেলাগুলোতে সবচেয়ে বেশি ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে গেছেন। এসব জেলায় ভর্তি হয়েছেন মোট ১২৮ জন নতুন রোগী।

এছাড়া ঢাকা বিভাগে ১২৫ জন, খুলনা বিভাগে ৯০ জন, রংপুর বিভাগে ৪২ জন, রাজশাহী বিভাগে ৬৮ জন, বরিশাল বিভাগে ৯৯ জন, ময়মনসিংহ বিভাগে ৩০ জন এবং সিলেট বিভাগে ১৯ জন ডেঙ্গু নিয়ে হাসপাতালে গেছেন গত ২৪ ঘণ্টায়।

এই সময়ে ঢাকা মহানগরে ৬৮৬ জন এবং ঢাকার বাইরে ৯৭৩ জন ডেঙ্গুর চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন বলে জানিয়েছে হেলথ ইমারজেন্সি অ্যান্ড অপারেশনস সেন্টার ও কন্ট্রোল রুম।