২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৮ আশ্বিন ১৪২৬

জরিমানার সঙ্গে লাগছে ‘সাবধান, এ বাড়িতে এইডিস মশার লার্ভা’

  • নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-08-22 20:48:43 BdST

ডেঙ্গু দমনে বাড়ি বাড়ি অভিযানে গিয়ে এইডিস মশার লার্ভা পেলে জরিমানার পাশাপাশি সেই বাড়ি সম্পর্কে জনসাধারণকে সাবধান করছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন।

‘সাবধান, এ বাড়িতে/প্রতিষ্ঠানে এইডিস মশার লার্ভা পাওয়া গিয়াছে’ লেখা স্টিকার ভবন-দোকানের সামনে লাগিয়ে দিচ্ছে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের নেতৃত্বে পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বৃহস্পতিবার ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের বেশ কয়েকটি এলাকায় অভিযান চালিয়ে ২২টি বাড়িতে এইডিস মশার লার্ভা পাওয়া গেছে।

উত্তর সিটি করপোরেশনের ‘চিরুনি’ অভিযানের মধ্যে এদিন ১৮টি বাড়িতে এবং দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের অভিযানে চারটি বাড়িতে এইডিসের মশার লার্ভা ধরা পড়ে।

এছাড়া বিভিন্ন বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানেও এইডিসের লার্ভা পাওয়ার পর তাদেরও বিভিন্ন অঙ্কের টাকা জরিমানা করেন দুই সিটি করপোরেশনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা।

উত্তর সিটি করপোরেশন

বৃহস্পতিবার ডিএনসিসির ম্যাজিস্ট্রেটরা ২৬১টি বাড়ি পরিদর্শন করে ১৮টি বাড়িতে এইডিসের লার্ভা পেয়েছেন বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

সকালে গুলশান-বাড্ডা লিংক রোড থেকে ১১৩ নম্বর সড়ক পর্যন্ত এইডিস মশার প্রজননস্থল ধ্বংসকরণ ও বিশেষ পরিচ্ছন্নতা অভিযান (চিরুনি অভিযান) চালানো হয়।

এ সময় ১১৩ নম্বর সড়কে একটি নির্মাণাধীন ভবনে এবং ‘হাশেম ইলেকট্রিক’ নামের একটি প্রতিষ্ঠানের ছাদে এইডিস মশার লার্ভা পাওয়ায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাজিদ আনোয়ার প্রত্যেককে এক লাখ টাকা করে জরিমানা করেন।

কোনো বাড়িতে এইডিস মশার লার্ভা পাওয়া গেলে দেয়ালে লাগিয়ে দেওয়া হচ্ছে সাবধানতার স্টিকার। সাত থেকে ১০ দিন পর আবার অভিযান চালিয়ে লার্ভা মিললে করা হবে জরিমানা। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

কোনো বাড়িতে এইডিস মশার লার্ভা পাওয়া গেলে দেয়ালে লাগিয়ে দেওয়া হচ্ছে সাবধানতার স্টিকার। সাত থেকে ১০ দিন পর আবার অভিযান চালিয়ে লার্ভা মিললে করা হবে জরিমানা। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

এছাড়া ১১৫ নম্বর সড়কে ‘হারমোনি হোল্ডিংস’র ছাদে এইডিস মশার লার্ভা পাওয়ায় এর মালিককে দুই লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

এই বাড়িগুলোর সামনে ‘সাবধান, এ বাড়িতে/প্রতিষ্ঠানে এডিস মশার লার্ভা পাওয়া গিয়াছে’ লেখা স্টিকার লাগানো হয়।

এইডিস মশার লার্ভা পাওয়ায় বারিধারার জে ব্লকে ‘গালফ অটো কারস লিমিটেড’র মালিককে এক লাখ ৭৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. সগীর হোসেন।

এদিকে মিরপুরের টোলারবাগে পরিত্যক্ত টায়ারে এইডিস মশার লার্ভা পাওয়ায় একটি দোকানের মালিককে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সালেহা বিনতে সিরাজ।

ভাষানটেকে চারটি দোকানে এইডিসের লার্ভা পেয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এস এম শফিউল আজম প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা করে মোট ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আবদুল হামিদ মিয়া সকাল সাড়ে ১০টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত বারিধারা ‘জে’ ব্লকে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ১৩টি দোকানের ট্রেড লাইসেন্স না থাকায় এবং ফুটপাত দখল করে ব্যবসা করার অপরাধে মোট এক লাখ ৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

ডিএনসিসি জানিয়েছে, গত ২০ অগাস্ট থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত গুলশান-বনানীর (১৯ নম্বর ওয়ার্ড) মোট ৬৫৮টি বাড়ি পরিদর্শন করে ৫৬টি বাড়িতে এইডিস মশার লার্ভা পাওয়া গেছে।

দক্ষিণ সিটি করপোরেশন

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের অভিযানে চারটি বাড়িতে এইডিস মশার লার্ভা পাওয়ায় ৪৪ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

তাদের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বল হয়, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ভ্রাম্যমাণ আদালত বৃহস্পতিবার ১১৮টি বাড়িতে তল্লাশি চালায়। এর মধ্যে চারটি বাড়িতে এইডিস মশার লার্ভা এবং দুটিতে নোংরা অপরিচ্ছন্ন পরিবেশ পাওয়ায় মোট ৪৪ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

১৩ বাড়িতে এইডিসের লার্ভা, পৌনে ২ লাখ টাকা জরিমানা  

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মিজানুর রহমান জানান, অভিযানে ১৯৩, ফকিরাপুলে নির্মাণাধীন একটি ভবনে এইডিস মশার লার্ভা পাওয়ায় ১০ হাজার টাকা, ৪৩/১ হাজারীবাগ শেরে বাংলা রোডের বাড়ির ছাদে পরিত্যক্ত টায়ারে এইডিসের লার্ভা পাওয়ায় ২৫ হাজার টাকা, এম দাস লেনের দুটি বাড়িতে লার্ভা জন্মানোর উপযোগী পরিবেশ পাওয়ায় ৫ হাজার টাকা এবং অভয় দাস লেনের দুটি বাড়িতে নোংরা অপরিচ্ছন্ন পরিবেশ থাকায় চার হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেছে মোবাইল কোর্ট ।

ম্যাজিস্ট্রেট বাবর আলীর নেতৃত্বে বড় মগবাজারের ওয়্যারলেস এলাকার ৩২টি বাড়িতে, ম্যাজিস্ট্রেট জাহিদ হোসেনের নেতৃত্বে হাজারীবাগ ও শেরে বংলা নগর এলাকার ৩০টি বাড়িতে, ম্যাজিস্ট্রেট জাহিদ হোসেনের নেতৃত্বে ফকিরাপুল এলাকার অভিযানে ২০টি বাড়ি এবং হাটখোলা রামকৃষ্ণ মিশন কে এম দাস লেন পরিদর্শন করে ডিএসসিসি র ভ্রাম্যমাণ আদালত।

আগের দিন ডেঙ্গুর বাহক এইডিস মশার লার্ভা ধ্বংসে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে পৌনে দুই লাখ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছিল।

স্ট্যান্ডার্ড বিল্ডার্সসহ তিনটি আবাসন নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান এবং ১০ জন বাড়ির মালিকের কাছ থেকে ওই জরিমানা আদায় করা হয় বলে ডিএসসিসির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।