পণ্যবাহী গাড়িতে যাত্রী নিলে কঠোর ব্যবস্থার হুঁশিয়ারি

  • জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-05-21 19:01:33 BdST

bdnews24
গাইবান্ধায় বুধবার রাতে ঢাকাফেরত একটি রড বোঝাই ট্রাক উল্টে ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে, গণপরিবহন বন্ধ থাকায় ঈদ সামনে রেখে তারা ট্রাকে উঠেছিলেন বলে ধারণা পুলিশের।

করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে লকডাউনের মধ্যে গণপরিবহন বন্ধ থাকায় কেউ পণ্যবাহী গাড়িতে যাত্রী পরিবহন করলে কঠোর আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে।

ঈদ সামনে রেখে বুধবার রাতে গাইবান্ধায় ঢাকাফেরত একটি রডবাহী ট্রাক উল্টে ১৩ জনের মৃত্যুর পর বৃহস্পতিবার সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ বিষয়ে হুঁশিয়ার করা হয়েছে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, “দেশব্যাপী সড়ক-মহাসড়কে পণ্যবাহী যানবাহনে যাত্রী পরিবহন করা যাবে না মর্মে নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও কোনো কোনো পণ্যবাহী যানবাহন কৌশলে যাত্রী পরিবহন করছে, যা সরকারি আদেশ অমান্যের শামিল এবং সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮ অনুযায়ী শাস্তিযোগ্য অপরাধ।”

সাধারণ ছুটির ধারাবাহিকতায় সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ সম্প্রতি এক আদেশে গণপরিবহন বন্ধের সিদ্ধান্ত ৩০ মে পর্যন্ত বর্ধিত করে। এ সময় পণ্যবাহী যানবাহনে যাত্রী পরিবহনের ওপর নিষেধাজ্ঞাও আরোপ করে।

গাইবান্ধায় ট্রাক উল্টে প্রাণ গেল ১৩ জনের  

অবশেষে হাজারো যাত্রীকে ফিরতেই হল ঢাকায়  

করোনাভাইরাসের সবচেয়ে বেশি রোগী এখন আছে ঢাকায়; তাই ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে এবার ঈদে যে যেখানে আছে, তাকে সেখানেই থাকার নির্দেশনা দিয়েছে সরকার।

এই সময়ে গণপরিবহন বন্ধ থাকায় অনেকেই পণ্যবাহী যানবাহনে উঠে বাড়ির পথ ধরছেন বলে সংবাদ মাধ্যমে খবর আসছে।

পণ্যবাহী গাড়িতে চড়াসহ বিভিন্ন উপায়ে মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাটে যাওয়া কয়েক হাজার মানুষকে সোমবার ঢাকায় ফেরতও পাঠিয়েছে পুলিশ।