সাবেক সাংবাদিক জাসদ নেতা সুমন মাহমুদের মৃত্যু

  • জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-05-22 22:14:54 BdST

ভোরের কাগজের সাবেক যুগ্ন বার্তা সম্পাদক, এক সময়ের জাসদ নেতা সুমন মাহমুদ মারা গেছেন।

ঢাকার আজগর আলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার বিকাল ৪টার দিকে তার মৃত্যু হয় বলে তার ভাই অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা মঞ্জুর আহাদ হেলাল জানিয়েছেন।

সত্তরোর্ধ্ব সুমন মাহমুদ দীর্ঘদিন ধরে শ্বাসকষ্টের সমস্যায় ভুগছিলেন। নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হওয়ায় গত ১২ মে তাকে পুরান ঢাকার ওই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল বলে জানান তার ভাই।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে তিনি বলেন, প্রথমে করেনাভাইরাস সংক্রমণের সন্দেহ করা হলেও দুইবার পরীক্ষা করে ফলাফল নেগেটিভ আসে।

জাসদের একসময়ের একনিষ্ঠ কর্মী সুমন ভোরের কাগজের জন্মলগ্ন থেকেই পত্রিকাটির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন।

ভোরের কাগজ সম্পাদক শ্যামল দত্ত বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “মাঝে একবার এনটিভিতে যোগ দিয়েছিলেন। পরে আবার ভোরের কাগজে এসে যুগ্ন বার্তা সম্পাদকের দায়িত্ব নেন।

“একবার তার হার্ট অ্যাটাক হয়েছিল, ওই অসুস্থতার কারণে প্রায় ৬ বছর আগে তিনি ভোরের কাগজ ছেড়ে দেন। এরপর আর কোথাও যোগ দেননি।”

সুমন মাহমুদের স্ত্রী ডা. পারভীন শাহীদা আকতার একজন ক্যান্সার বিশেষাজ্ঞ। তাদের দুই সন্তানের মধ্যে ছেলেও চিকিৎসক, মেয়ে প্রকৌশলী।

সুমন মাহমুদের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে বিবৃতি দিয়েছেন জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু এবং সংসদ সদস্য সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার।

বিবৃতিতে বলা হয়, “ষাটের দশকে ছাত্রলীগের নেতা হিসাবে সুমন মাহমুদ স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। বিএলএফ-এর সদস্য হিসেবে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন তিনি।

“প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই তিনি জাসদের সাথে যুক্ত ছিলেন এবং ১৯৭৯-৮১ সালে জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। পরবর্তীতে তিনি রাজনীতি ছেড়ে পেশা হিসাবে সাংবাদিকতাকে বেছে নেন।”

সুমন মাহমুদের আত্মার শান্তি কামনার পাশাপাশি তার শোক সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন জাসদ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক।