দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য ১১ হাজার টন চাল, পৌনে ২ কোটি টাকা

  • জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-07-06 12:15:40 BdST

bdnews24
কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলার হাতিয়া ইউনিয়নের গাবুরজান গ্রামের বাড়িঘর তলিয়ে গেছে বন্যার পানিতে, বানভাসী মানুষ আশ্রয় নিয়েছে ঘরের চালে।

বন্যা, নদীভাঙ্গন, পাহাড়ি ঢল, অতিবৃষ্টি, ঘূর্ণিঝড়, ভূমিকম্প, অগ্নিকাণ্ডসহ বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্তদের মানবিক সহায়তা হিসেবে দিতে ১০ হাজার ৯০০ মেট্রিক টন চাল এবং এক কোটি ৭৩ লাখ টাকা বরাদ্দ দিয়েছে সরকার।

এছাড়া বন্যা দুর্গত ১২ জেলায় ২৪ হাজার প্যাকেট/বস্তা শুকনো ও অন্যান্য খাবার, শিশু খাদ্য কিনতে ২৪ লাখ টাকা এবং গো-খাদ্য কিনতে আরও ২৪ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

এসব ত্রাণ সামগ্রী ডিসিদের অনুকূলে বরাদ্দ দিতে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালকে আলাদা চিঠি পাঠিয়েছে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়।

কোন জেলা বিশেষ শ্রেণিতে এবং কোনগুলো ‘এ’, ‘বি’ ও ‘সি’ শ্রেণিতে রয়েছে তা তুলে ধরে সেসব জেলার জন্য কতটুকু চাল ও নগদ টাকা বরাদ্দ দিতে হবে তাও নির্ধারণ করে দিয়েছে ত্রাণ মন্ত্রণালয়।

বিশেষ শ্রেণি এবং‘এ’, শ্রেণির জেলায় ২০০ মেট্রিক টন চাল ও তিন লাখ টাকা, ‘বি’ শ্রেণিতে দেড়শ মেট্রিক টন চাল ও আড়াই লাখ টাকা এবং ‘সি’ শ্রেণির জেলাগুলোতে ১০০ মেট্রিক টন চাল ও দুই লাখ টাকা করে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়েছে, এ বরাদ্দ শুধু আপৎকালীন সময়ে প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে ব্তিরণ করতে হবে। অন্য কোনো কাজে এগুলো বিতরণ করা যাবে না।

মানবিক সহায়তা কর্মসূচি বাস্তবায়ন নির্দেশিকা ২০১২-১৩ অনুসরণ করে এসব ত্রাণ বিতরণের নির্দেশনা দিয়ে নিরীক্ষার জন্য ডিসিদের প্রয়োজনীয় হিসাব সংরক্ষণ করতে বলা হয়েছে।

প্রতি মাসের ব্যয় বিবরণী দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর এবং দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের পাঠাতে হবে ডিসিদের।

শুকনো খাবার, শিশু ও গো-খাদ্য

বন্যা দুর্গত ১২ জেলায় ২৪ হাজার প্যাকেট/বস্তা শুকনো ও অন্যান্য খাবার, শিশু খাদ্য কিনতে ২৪ লাখ টাকা এবং গো-খাদ্য কিনতে আরও ২৪ লাখ টাকা বরাদ্দ দিতে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালকে চিঠি পাঠিয়েছে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়।

রংপুর, কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা, নীলফামারী, লালমনিরহাট, সিলেট, সুনামগঞ্জ, বগুড়া, সিরাজগঞ্জ, জামালপুর, টাঙ্গাইল ও মাদারীপুর জেলায় দুই হাজার প্যাকেট/বস্তা করে শুকনো ও অন্যান্য খাবার বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

বন্যা, নদীভাঙ্গন, পাহাড়ি ঢল, অতিবৃষ্টি, ঘূর্ণিঝড়, ভূমিকম্প, অগ্নিকাণ্ডসহ বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে মানবিক সহায়তা হিসেবে বিনামূল্যে বিতরণের জন্য এসব খাদ্য সামগ্রী বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত এই ১২টি জেলায় মানবিক সহায়তা হিসেবে শিশু খাদ্য কিনতে দুই লাখ টাকা করে মোট ২৪ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়েছে, শিশু খাদ্য হিসেবে খেজুর, বিস্কুট, ফার্টিফায়েড তেল, ব্রাউন চিনি, সুজি, মশুরির ডাল, সাগু, ফার্টিফায়েড চাল, ওয়াটার পিউরিফায়ার ট্যাবলেট, বাদাম, মানসম্মত রেডিমেইড ফুড স্থানীয়ভাবে কিনে বিতরণ করতে হবে।

বান্যা দুর্গত এই ১২ জেলায় মানবিক সহায়তা হিসেবে গো-খাদ্য কিনতে প্রতি জেলায় দুই লাখ টাকা করে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

গো-খাদ্য হিসেবে বিভিন্ন প্রকার ভূষি, খৈল, চালের কুড়া, চিটা গুড়, খড়, মানসম্মত রেডিমেইড ফুড স্থানীয়ভাবে কিনে বিতরণের নির্দেশনা দিয়েছে ত্রাণ মন্ত্রণালয়।