কোভিড-১৯: ‘লকডাউন’ নয়, কড়াকড়ি হবে

  • জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-11-24 13:58:40 BdST

bdnews24
মানুষকে মাস্ক পরতে বাধ্য করতে রাস্তায় নেমেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত

শীত শুরু হতে না হতেই করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় কিছু কিছু ক্ষেত্রে কড়াকড়ি আরোপ করতে যাচ্ছে সরকার।

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের মঙ্গলবার সচিবালয়ে এক ব্রিফিয়ে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

আবারও লকডাউন দেওয়া হবে কি না, সেই প্রশ্নে কাদের বলেন, “পুরো লকডাউন আসলে সম্ভব নয়, পাকিস্তানতো পারেনি, ভারত পারছে না।

“রোজ রোজ সংক্রমণ বাড়ছে, কাজেই এ বিষয়ে সরকারের প্রস্তুতি আছে, প্রধানমন্ত্রী ব্যক্তিগতভাবে বিষয়টি মনিটর করছেন। কঠোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।”

কাদের বলেন, “মাস্ক ব্যবহারটা একেবারেই বাধ্যতামূলক করবে। যারা মাস্ক পড়বে না, জরিমানা দিতে হবে এ বিষয়টা এখন স্পষ্ট, পরিষ্কার। প্রধানমন্ত্রী এ বিষয়ে খুবই সিরিয়াস।

মাঝে কিছুদিন বাংলাদেশে দৈনিক শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দেড় হাজারের কাছাকাছি থাকলেও এখন তা আবার বেড়ে দুই হাজারের মত থাকছে। সব মিলিয়ে দেশে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা সাড়ে ৪ লাখের কাছাকাছি পৌঁছে গেছে, মৃত্যু হয়েছে ৬ হাজার ৪১৬ জনের।

মাস্ক নিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে যা দেখা গেল

সংক্রমণ বাড়ছে, সচেতনতা হারাচ্ছে

মাস্ক না পরলে ‘কঠিন সাজা’  

বার বার বলার পরেও যারা মাস্ক পরছেন না, ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তাদের ‘কঠিন সাজা দেওয়া হবে’ বলে ইতোমধ্যে হুঁশিয়ার করেছে সরকার।

কাদের বলেন, “সিদ্ধান্ত এমনও হতে পারে, কিছু কিছু ক্ষেত্রে যদি বিধিনিষেধ আরোপ করতে হয় সেটাও করতে হবে। কড়াকড়ড়িটা থাকবে সিদ্ধান্তে। ফ্রি স্টাইল, মানে মাস্ক না লাগিয়ে ঘুরে বেড়ানো, এ শহরের যে প্রবণতা... এখন অবশ্য কিছু কিছু পড়ছে। মফস্বলে যে একদম মানে না। এসব ব্যাপারে কড়াকড়ি হচ্ছে।”

এর আগে এলাকাভিত্তিক তিন সপ্তাহ লকডাউনের মত পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছিল, আবার সেই দিকে সরকার যাবে কি না, এই প্রশ্নে কাদের বলেন, “এ রকম টাইমটেবল না। এখন দেখছি যে কোন দিকে যাচ্ছে। (সংক্রমণের) গতিপ্রকৃতি দেখে এর পরে প্রয়োজনে কঠোর সিদ্ধান্ত নিতে হবে। মাস্ক বাধ্যতামূলক ব্যবহার করবে এটা এখনকার সিদ্ধান্ত।”