পুলিশের বাধায় ভাস্কর্যবিরোধী মিছিল পণ্ড

  • নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-12-04 15:50:31 BdST

জুমার নামাজের পর ঢাকার বায়তুল মোকাররমের সামনে ভাস্কর্যবিরোধী মিছিলের চেষ্টা পণ্ড করে দিয়েছে পুলিশ।

কোনো সংগঠনের পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচি না থাকলেও শুক্রবার দুপুরে শ খানেক লোক কোনো ব্যানার ছাড়াই বায়তুল মোকারমের উত্তর গেইটে জমায়েত হয়ে বিক্ষোভ মিছিল শুরুর চেষ্টা করে।

তারা ভাস্কর্যবিরোধী স্লোগান দেওয়া শুরু করলে পুলিশ লাঠিপেঠা করে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

হেফাজতে ইসলামের নেতাদের ভাস্কর্যবিরোধিতার মধ্যে শুক্রবার জুমার নামাজের পর বায়তুল মোকাররমের উত্তর গেইটে শ খানেক লোক জমায়েত হয়ে ভাস্কর্য বন্ধের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

রাজধানীতে অনুমতি ছাড়া মিছিল-সভা সমাবেশ করার ওপর দুদিন আগেই নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল ঢাকা মহানগর পুলিশ।

পুলিশের মতিঝিল জোনের অতিরিক্ত উপ কমিশনার এনামুল হক মিঠু সাংবাদিকদের বলেন, "কোনো ধরনের মিছিল বা সমাবেশ করতে হলে পুলিশের অনুমতি লাগবে। কিন্তু জুমার নামাজের পর কিছু লোক বায়তুল মোকাররম মসজিদ থেকে বের হয়ে আমাদের ব্যারিকেড ভেঙে মিছিল শুরু করে।

ঢাকার বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে শুক্রবার জুমার নামাজের পর শ খানেক লোক জড়ো হয়ে ভাস্কর্যবিরোধী স্লোগান দেওয়া শুরু করলে লাঠিপেটা করে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয় পুলিশ। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

“তারা শাহবাগের দিকে যাওয়ার চেষ্টা করছিল। তাদেরকে সেইদিকে যেতে দেওয়া হয়নি। তবে তাদের পরিচয় এই মুহূর্তে বলা সম্ভব হচ্ছে না।"

হেফাজতে ইসলামসহ কয়েকটি ধর্মভিত্তিক সংগঠন গত কিছুদিন ধরে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য স্থাপনের বিরোধিতায় সরব হয়েছে। অবশ্য তাদের দাবি, তারা বঙ্গবন্ধুর বিরুদ্ধে নন, সব ধরনের ভাস্কর্যের বিরুদ্ধে।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম প্রতিবেদক তাবারুল হক জানান, বায়তুল মোকাররমের সামনে যারা মিছিলের চেষ্টা করছিলেন, তাদের হাতে কোনো ধরনের ব্যানার ফেস্টুন দেখা যায়নি।

হেফাজতে ইসলামের নেতাদের ভাস্কর্যবিরোধিতার মধ্যে শুক্রবার জুমার নামাজের পর বায়তুল মোকাররমের উত্তর গেইটে শ খানেক লোক জমায়েত হয়ে ভাস্কর্য বন্ধের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

পুলিশ সদস্যরা প্রথমে তাদের বিক্ষোভ বাদ দিয়ে সরে যেতে অনুরোধ করেন। কিন্তু তারা সেই অনুরোধ উপেক্ষা করে ভাস্কর্যবিরোধী স্লোগান দিতে থাকেন।

এরপর তারা মিছিল নিয়ে বায়তুল মোকাররমের সামনে থেকে পল্টনের দিকে এগোলে চাইলে পুলিশ লাঠিপেঠা শুরু করে।

এ পরিস্থিতিতে কিছুসময় যানবাহন চলাচল বিঘ্নিত হয়। তবে মিনিট পনের পর পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে যায়।

এ সময় পুলিশ সদস্যরা কয়েকজনকে তল্লাশি করেন এবং তাদের মোবারইল ফোন পরীক্ষা করে দেখেন।

হেফাজতে ইসলামের নেতাদের ভাস্কর্যবিরোধিতার মধ্যে শুক্রবার জুমার নামাজের পর বায়তুল মোকাররমের উত্তর গেইটে শ খানেক লোক জমায়েত হয়ে ভাস্কর্য বন্ধের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

গত কয়েক শুক্রবার ধরেই বিভিন্ন ধর্মীয় সংগঠন এ ধরনের মিছিল সমাবেশ করে আসছিল বলে শুক্রবার দুপুরের আগেই বায়তুল মোকারম, পল্টন, বিজয়নগর পানির ট্যাংক, নয়াপল্টন ও বিজয়নগরের আশপাশের এলাকায় বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়।

নিরাপত্তার কড়াকড়ি বাড়ানো হয় শাহবাগ এলাকাতেও। সেখানেও বেলা ১২টা থেকে পুলিশ সদস্যদের সতর্ক অবস্থান নিয়ে থাকতে দেখা যায়। কাউকে সন্দেহ হলে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ বা তল্লাশিও করেন পুলিশ সদস্যরা।