ধর্ষণ: নুরকে বাদ দিয়ে আরেক অভিযোগপত্র, আসামি শুধু মামুন

  • আদালত প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-06-17 19:29:36 BdST

ধর্ষণ ও ধর্ষণে সহযোগিতার আরেক মামলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিপি নুরুল হক নূরসহ পাঁচজনকে অব্যাহতির সুপারিশ করে অভিযোগপত্র জমা দিয়েছে পুলিশ।

লালবাগ থানার এ মামলায় বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের সাবেক আহ্বায়ক হাসান আল মামুনকে আসামি করে এই অভিযোগপত্র দেওয়া হয়েছে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা লালবাগ থানার পরিদর্শক (অপারেশনস) আসলাম উদ্দিন মোল্লা বৃহস্পতিবার ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে তার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন বলে আসামিপক্ষের  অন্যতম আইনজীবী  খাদেমুল ইসলাম জানান।

নুরুল হক নূর ছাড়া বাকি যে চার আসামির অব্যাহতির আবেদন করা হয়েছে, তারা হলেন- ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক নাজমুল হাসান সোহাগ ও সাইফুল ইসলাম, সভাপতি নাজমুল হুদা ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আব্দুল্লাহিল বাকি।

হাসান আল মামুনের বিরুদ্ধে অভিয্গোপত্র দিয়েছে পুলিশ

হাসান আল মামুনের বিরুদ্ধে অভিয্গোপত্র দিয়েছে পুলিশ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের এক শিক্ষার্থী ‘ধর্ষণ ও তাতে সহযোগিতার’ অভিযোগ এনে গত বছর ২১ সেপ্টেম্বর ছয়জনের বিরুদ্ধে এই মামলা দায়ের করেন।

তাতে ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের আহ্বায়ক হাসান আল মামুনকে প্রধান আসামি করা হয়। এজাহারে ‘ধর্ষণে সহযোগিতাকারী’ হিসেবে নুরের নাম উল্লেখ করা হয়।

একই অভিযোগে পরদিন কোতোয়ালি থানায় ওই ৬ জনের বিরুদ্ধে আরেকটি মামলাটি করে সেই শিক্ষার্থী। সেখানে তারই বিভাগ থেকে স্নাতকোত্তর করা নাজমুল হাসান সোহাগকে প্রধান আসামি করা হয়।

গত ৮ জুন সোহাগ ও মামুনের বিরুদ্ধে ওই মামলায় অভিযোগপত্র দেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক মো. ওয়াহিদুজ্জামান। তাতে নুরসহ বাকি চারজনকে অব্যাহতি দেওয়ার সুপারিশ করা হয়।

ওই ছাত্রীর অভিযোগ ছিল, একই বিভাগের শিক্ষার্থী এবং ছাত্র অধিকার পরিষদের কর্মী হওয়ায় এই পরিষদের আহ্বায়ক হাসান আল মামুনের সঙ্গে তার ‘প্রেমের সম্পর্ক’ হয়। সেই সম্পর্কের জের ধরে ৩ জানুয়ারি লালবাগের বাসায় নিয়ে তাকে ‘ধর্ষণ করেন’ মামুন। তখন সংগঠনটির যুগ্ম আহ্বায়ক নাজমুল হাসান সোহাগ তার পাশে দাঁড়ান। চিকিৎসায় সহায়তা করার পর মামুনকে খুঁজে পেতে সাহায্যের কথা বলে চাঁদপুরে নিয়ে ফেরার পথে নাজমুল সোহাগও লঞ্চের মধ্যে তাকে ‘ধর্ষণ করেন’।

পরে ঘটনার প্রতিকার চেয়ে তিনি নূরসহ তাদের অপর সহকর্মীদের কাছে গেলে প্রথমে সহযোগিতার আশ্বাস দিলেও পরে ‘বাড়াবাড়ি করলে চরিত্রহননের’ ভয় দেখান বলে ওই ছাত্রীর অভিযোগ।

 

পুরনো খবর

ধর্ষণ: ভিপি নূরকে বাদ দিয়ে এক মামলায় অভিযোগপত্র  

নেতার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগের 'প্রমাণ পায়নি' ছাত্র অধিকার পরিষদ  

ধর্ষণ: ছাত্র অধিকার পরিষদের নেতৃত্ব হারালেন মামুন  

বিচারের জন্য প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চাইলেন ওই ঢাবি ছাত্রী  

নূরের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা  

ধর্ষণের অভিযোগকারী ঢাবি ছাত্রীকে হুমকি দেওয়ার ‘প্রমাণ পেয়েছে’ পুলিশ  

ধর্ষণ মামলায় নূরের সহযোগী সোহাগ গ্রেপ্তার