পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

দুই মাসের বেশি সময় পর ফের শুরু টিকাদান

  • জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-07-01 15:48:17 BdST

দুই মাসের বেশি সময় পর চীনা কোম্পানি সিনোফার্ম ও যুক্তরাষ্ট্রের ফাইজারের তৈরি করোনাভাইরাসের টিকা নিয়ে সারাদেশে আবারও গণটিকাদান শুরু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সব মেডিকেল কলেজ, জেলা হাসপাতাল, সদর হাসপাতাল ও ২৫০ শয্যার হাসপাতালে সিনোফার্মের টিকাদান শুরু হয়েছে। প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বেলা ৩টা পর্যন্ত টিকা দেওয়া হবে। আর ফাইজারের টিকা দেওয়া হচ্ছে ঢাকার সাতটি কেন্দ্রে।

গত ৭ ফেব্রুয়ারি অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা দিয়ে দেশে গণটিকাদান শুরু হয়। কিন্তু টিকা সঙ্কট দেখা দিলে গত ২৫ এপ্রিল সে কর্মসূচি স্থগিত করা হয়। সেসময় টিকার দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হচ্ছিল।

সম্প্রতি চীনের সিনোফার্ম এবং যুক্তরাজ্যের ফাইজার-বায়োএনটেকের টিকা আসার পর বুধবার আবারও গণটিকাদান শুরুর ঘোষণা দেয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। সে অনুযায়ী দুই মাস ৭দিন পর ফের শুরু হল টিকাদান কর্মসূচি।

তবে এখনও কিছু কিছু জায়গায় টিকাদান পুরোপুরি শুরু হয়নি। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, ঢাকায় ৪৮টি কেন্দ্রের মধ্যে আটটি কেন্দ্র বাদ দেওয়া হয়েছে। সিনোফার্মের টিকা দেওয়া হচ্ছে ঢাকার ৪০টি কেন্দ্রে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে সম্প্রতি ফাইজারের টিকা নেওয়ার আগে ফরম পূরণ করছেন টিকা গ্রহীতারা। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

ঢাকার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল, শেখ রাসেল জাতীয় গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট ও হাসপাতাল কেন্দ্রে দেওয়া হচ্ছে ফাইজারের তৈরি করোনাভাইরাসের টিকা।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. নজরুল ইসলাম খান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “আমরা শুধু ফাইজার দিচ্ছি। আর অক্সফোর্ডের কিছু টিকা আছে সেগুলো দেব।

“যারা বিদেশগামী, তারা যেই আসুক, সত্যিকার অর্থে বিদেশগামী হলে আমরা স্পট রেজিস্ট্রেশনের ব্যবস্থা করে টিকা দিয়ে দেব। পাশাপাশি অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার দ্বিতীয় ডোজও দেওয়া হচ্ছে।”

খুলনায় দুটি কেন্দ্রের মধ্যে একটিতে টিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়েছে জানিয়ে খুলনার সিভিল সার্জন ডা. নিয়াজ মোহাম্মদ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “কেন্দ্রে টিকা নিতে আসা মানুষের মোটামুটি ভিড় রয়েছে।

“কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের কারণে আরেকটি কেন্দ্র বন্ধ আছে। মেসেজগুলো ভালোভাবে থ্রো করতে পারিনি। আজ থেকে মেসেজ যাচ্ছে। শনিবার থেকে দুটি কেন্দ্রই চালু করতে পারব আশা করছি।”

কুমিল্লার সিভিল সার্জন ডা. মীর মোবারক হোসাইন বলেন, “এখন পর্যন্ত যারা অগ্রাধিকার তালিকায় আছে তাদের টিকা দিচ্ছি। এছাড়া যারা এর আগে নিবন্ধন করেও টিকা পায়নি তাদের টিকা দেওয়া হচ্ছে।”

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ একরাম উল্লাহ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, যারা আগে টিকা পায়নি তারা এখন সিনোফার্মের টিকা পাচ্ছেন।

“যারা নিবন্ধন করেছেন কিন্তু কোভিশিল্ড পাননি, তাদের সিনোফার্মের টিকা দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া স্বাস্থ্যকর্মী, পুলিশ সদস্যসহ অগ্রাধিকার তালিকায় থাকা কর্মীরাও টিকা পাচ্ছেন।”

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে বৃহস্পতিবার ফাইজারের টিকা দেওয়া হচ্ছে এক ব্যক্তিকে। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

নতুন করে নিবন্ধন কার্যক্রম খুলে দেওয়ার পর বুধবার পর্যন্ত টিকার জন্য ৭২ লাখ ৪৮ হাজার ৮২৯ জন নিবন্ধন করেছেন বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

এর আগে অক্সফোর্ডের টিকার প্রথম ডোজ নিয়েছেন ৫৮ লাখ ২০ হাজার ১৫ জন। ৪২ লাখ ৮৯ হাজার ২১২ জন নিয়েছেন দ্বিতীয় ডোজ। সব মিলিয়ে অক্সফোর্ডের টিকা নিয়েছেন ১ কোটি ১ লাখ ৯ হাজার ২২৭ জন।

সেরাম ইনস্টিটিউট থেকে এ পর্যন্ত ১ কোটি ২ লাখ ডোজ টিকা এসেছে। যারা প্রথম ডোজ পেয়েছেন, তাদের সবাইকে দ্বিতীয় ডোজ দেওয়ার মত অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা সরকারের হাতে নেই। তাই অন্য উৎস থেকে টিকা সংগ্রহের চেষ্টা চলছে।

টিকার আন্তর্জাতিক প্ল্যাটফর্ম কোভ্যাক্স থেকে ফাইজারের তৈরি ১ লাখ ৬২০ ডোজ এবং চীনের উপহার হিসেবে দুই দফায় সিনোফার্মের ১১ লাখ ডোজ টিকা দেশে এসেছে, যা দিয়ে আবারও গণটিকাদান শুরু হল।