পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

নিজের বাসা পরিষ্কারে ‘লজ্জা ছাড়তে’ বললেন মেয়র আতিক

  • নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-07-31 21:52:29 BdST

bdnews24

উত্তরায় নিজের বাসা নিজে পরিস্কারের পর ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন- ডিএনসিসি এর মেয়র আতিকুল ইসলাম ‘লজ্জা পরিহার’ করে সবাইকে নিজের বাসাবাড়ি পরিষ্কারের অনুরোধ করেছেন।

করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যে ঢাকায় ডেঙ্গুর প্রকোপ বেড়ে যাওয়ার প্রেক্ষাপটে ‘দশটায় ১০ মিনিট প্রতি শনিবার, নিজ নিজ বাসাবাড়ি করি পরিষ্কার’ কর্মসূচী শুরু করে উত্তর সিটি।

শনিবার সকাল ১০টায় এরই অংশ হিসেবে মেয়র আতিক নিজের বাসা পরিষ্কার করেন, যা তার ফেইসবুকেও প্রচার করা হয় বলে ডিএনসিসির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

রাজধানীর উত্তরায় নিজের বাসায় পরিচ্ছন্নতা কর্মসূচীর পর তিনি বাংলাদেশ ক্লাবে সাংবাদিকদের বলেন, “আমাদের সকলকেই লজ্জা পরিহার করে প্রতি শনিবার সকাল দশটায় ১০ মিনিট স্বতঃস্ফূর্তভাবে নিজ নিজ বাসাবাড়ি পরিষ্কার করতে হবে।”

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, নগরবাসীদের মধ্যে যারা এক‌ই সময়ে একযোগে নিজ নিজ বাসাবাড়ি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রমে অংশগ্রহণ এবং তা ফেসবুকে প্রচার করেছেন তাদেরকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান মেয়র।

তিনি বলেন, “মহামারী চলাকালে যাতে ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়ায় কার‌ও মৃত্যু না হয়, সেজন্যই ঢাকা উত্তর সিটি করপোরশেনের ১০টি অঞ্চলের ৫৪টি ওয়ার্ডে একযোগে ২৭ জুলাই থেকে ৭ অগাস্ট পর্যন্ত শুক্রবার ছাড়া ১০ দিনের মশক নিধনে চিরুনী অভিযানসহ জনসচেতনতামূলক কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে।

“সরকারি কিংবা বেসরকারি যেকোনো ভবনে এডিস মশার উৎপত্তিস্থল চিহ্নিত হলেই জরিমানাসহ প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে যা অব্যাহত থাকবে।“

মেয়র বলেন, নাগরিক সেবায় ‘সবার ঢাকা’ মোবাইল অ্যাপ, জরুরি সেবায় ৩৩৩ নম্বর এবং ডিএনসিসির ০৯৬০২২২২৩৩৩ ও ০৯৬০২২২২৩৩৪ নম্বর হটলাইন চালু রয়েছে।

এই অ্যাপ ব্যবহার করে এডিস মশার উৎপত্তিস্থল সম্পর্কে সবচেয়ে বেশি তথ্যবহুল ছবি সরবরাহকারীকে পুরস্কৃত করার কথা জানানো হয়েছে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে।

পরে ডিএনসিসি মেয়র উত্তরায় মশা নিধনে চিরুনি অভিযান কার্যক্রম সরেজমিনে পরিদর্শন করেন।

পরিবর্দশনকালে তার উপস্থিতিতে উত্তরা ১২ নম্বর সেক্টরে ১ নম্বর রোডের ৩২ নম্বর ভবনে এডিসের লার্ভা পাওয়ায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাজিয়া আফরীন পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত ভবনের মালিককে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

পরে একই সেক্টরে শাহ মখদুম এভিনিউ এলাকায় একটি নির্মাণাধীন ভবনে এডিসের লার্ভা পাওয়ায় অ্যাশিউর ডেভেলপার কোম্পানির সাইট ইঞ্জিনিয়ারকে তিন লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

ছয় লাখ টাকা জরিমানা

এদিকে ডিএনসিসি এলাকায় এডিস মশা, ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া বিস্তার রোধকল্পে মোবাইল কোর্টে ৩৫টি মামলায় সর্বমোট ৬ লাখ ৭৬ হাজার ৩০০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয় বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

এর পাশাপাশি মাইকিংসহ জনসচেতনতামূলক বার্তা প্রচার অব্যাহত রয়েছে বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।