পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

সাংবাদিক এমদাদুলকে ‘মারধরের’ মামলায় ‘হামলাকারী’ গ্রেপ্তার

  • জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2022-01-28 22:39:38 BdST

‘বাসায় ঢুকে’ বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (ক্র্যাব) সাবেক অর্থ সম্পাদক সাংবাদিক মো. এমদাদুল হক খানকে ‘মারধরের’ অভিযোগে করা মামলায় ‘হামলাকারীকে’ গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গ্রেপ্তার খোরশেদ আলম মাসুদ টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলায় খাদ্য পরিদর্শকের দায়িত্বে আছেন। তার স্ত্রীর মালিকানায় থাকা একটি ফ্ল্যাটে ভাড়া থাকেন এমদাদ।

শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে খোরশেদকে রাজধানীর সেগুনবাগিচার বাসা থেকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে জানান হাতিরঝিল থানার ওসি আব্দুর রশিদ।

তার বিরুদ্ধে হামলার অভিযোগে গত বৃহস্পতিবার মামলা করেন এক সময় মোহনা টেলিভিশনে স্টাফ রিপোর্টার হিসাবে কাজ করা এমদাদুল। এর আগে তিনি বেশ কয়েকটি দৈনিক পত্রিকাতেও কাজ করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, “মগবাজারের পেয়ারাবাগের ভাড়া ফ্ল্যাটে গত বুধবার রাতে মাসুদসহ আরও দুই-তিনজন কলিংবেল টিপে ঘরে ঢুকে মারধর করে এবং হত্যার চেষ্টা করে।

“ঘটনার সময় আমার স্ত্রী ও সন্তান কক্ষে ছিল। আমার স্ত্রী এগিয়ে আসলে তাকেও নাজেহাল করে মাসুদ এবং নিচতলায় থাকা আমার মোটর সাইকেল ভাঙচুর করে।”

এমদাদুল হক জানান,আহত অবস্থায় তিনি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নেন। পরে এ ঘটনায় হাতিরঝিল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

মামলার তদন্তের বিষয়ে জানতে চাইলে ওসি আব্দুর রশিদ বলেন, “মাসুদ ওই ফ্ল্যাটে ঢুকে এমদাদকে মারধর করেছেন, এমন প্রমাণ পাওয়া গেছে। মূলত ফ্ল্যাট নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর দ্বন্দ্বের কারণে এই ঘটনা।”

এমদাদ জানান, পেয়ারাবাগে ‘ফিরোজা গার্ডেন’ নামে একটি ভবনে আটতলার একটি ফ্ল্যাটে সাত মাস ধরে ভাড়া থাকছেন। ফ্ল্যাট মালিক মাসুদের স্ত্রী নাহিদ তন্ময় তনুর সঙ্গে তিন বছরের জন্য তার চুক্তি হয়।

তিনি বলেন, “কিন্তু তাদের স্বামীর-স্ত্রীর মধ্যে কী ঝামেলা আমার জানা নেই। ওই ফ্ল্যাটে আসার পর থেকেই আমাকে ফ্ল্যাট ছেড়ে দিতে হুমকি-ধামকি দিয়ে আসছেন মাসুদ।”

মাসুদ খাদ্য অধিদপ্তরের একজন পরিদর্শক হলেও ফৌজদারি অপরাধ করায় তাকে গ্রেপ্তার করতে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের কোনো অনুমতি নিতে হয়নি বলে জানান ওসি আব্দুর রশিদ।

ক্রাইম রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (ক্র্যাব) পক্ষ থেকে সংগঠনটির সাবেক অর্থ সম্পাদক সাংবাদিক এমদাদুল হকের ওপর হামলার ঘটনায় উদ্বেগ জানানো হয়েছে।

ক্র্যাব সভাপতি মির্জা মেহেদী তমাল ও সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান বিকুসহ কার্যনির্বাহী কমিটির নেতারা ঘটনায় জড়িত খোরশেদ আলম মাসুদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।