১৮ ডিসেম্বর ২০১৮, ৪ পৌষ ১৪২৫

চট্টগ্রামে অঞ্জলী হত্যা: সাবেক মাদ্রাসা কর্মকর্তা রিমান্ডে

  • চট্টগ্রাম ব্যুরো, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2015-06-14 17:54:11 BdST

bdnews24

চট্টগ্রাম নার্সিং কলেজের শিক্ষিকা অঞ্জলী রানী দেবী হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার মাদ্রাসা কর্মকর্তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পাঁচ দিনের হেফাজতে নেওয়ার আনুমতি পেয়েছে পুলিশ।

রোববার এই ঘটনায় গ্রেপ্তার রেজাকে আদালতে হাজির করে ১২ দিনের হেফাজতের আবেদন করলে মহানগর হাকিম রহমত আলী ৫ দিনের রিমান্ডের আদেশ দেন।

চট্টগ্রাম নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (প্রসিকিউশন) কাজী মুক্তাকি ইবনু মিনান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “আদালত শুনানি শেষে পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।”

চট্টগ্রাম নার্সিং কলেজের শিক্ষিকা অঞ্জলী রানী দেবী হত্যাকাণ্ডের প্রায় ছয়মাস পর শনিবার রাতে নগরীর জিইসি মোড় থেকে চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার জামিয়া আল ইসলামিয়া মাদ্রাসার সাবেক ভূসম্পত্তি কর্মকর্তা মোহাম্মদ রেজাকে (৪৮) আটক করে গোয়েন্দা পুলিশ।

গত ১০ জানুয়ারি নগরীর পাঁচলাইশ থানার তেলিপট্টি লেইন এলাকায় অঞ্জলীকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে আহত করে দুর্বত্তরা। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

ওইদিন বিকালে অজ্ঞাতপরিচয় আসামিদের বিরুদ্ধে পাঁচলাইশ থানায় মামলা করেন নিহতের স্বামী ডা. রাজেন্দ্র চৌধুরী। পরে মামলার তদন্তভার গোয়েন্দা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও নগর গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক কেশব চক্রবর্তী জানান, চট্টগ্রাম নার্সিং কলেজে হিজাব পড়তে নিষেধ করার পর কলেজ কর্তৃপক্ষকে উকিল নোটিস পাঠিয়েছিলেন রেজা।

গত ১০ জানুয়ারি এই হত্যাকাণ্ডের পর থেকে রেজা পলাতক ছিল জানিয়ে তদন্ত কর্মকর্তা বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “ওই সময় রেজা নিজেকে আড়ালে রাখতে মোবাইল সেট ও সিম পরিবর্তনসহ বিভিন্ন কাজ করেছেন।”

শনিবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাকে আটক করা হয়।

কেশব বলেন, “জিজ্ঞাসাবাদে বোঝা গেছে রেজা ‘উগ্রপন্থী মতবাদে’ বিশ্বাসী। ধারণা করা হচ্ছে সে কোনো জঙ্গি সংগঠনের সঙ্গে জড়িত। তার অতীত কিছু কর্মকাণ্ডের রেকর্ড গোয়েন্দা পুলিশের হাতে আছে, যেগুলো ‘সন্দেহজনক’।”

নিহতের স্বামী ডা. রাজেন্দ্র চৌধুরী এর আগে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানিয়েছিলেন, অঞ্জলীকে হত্যার পর তাকেও মোবাইল ফোনে হুমকি দেওয়া হয়। এ বিষয়ে তিনি থানায় সাধারণ ডায়েরিও করেছেন।