২৪ আগস্ট ২০১৯, ৯ ভাদ্র ১৪২৬

বাংলাদেশে ২০ কোটি ডলার বিনিয়োগ করবে কোকা-কোলা

  • জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-08-08 23:52:38 BdST

bdnews24

বাংলাদেশে আগামী পাঁচ বছরে ২০ কোটি ডলার বিনিয়োগের প্রস্তাব করেছেন কোকা-কোলার প্রেসিডেন্ট ও প্রধান অপারেটিং অফিসার ব্রায়ান জন স্মিথ।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতে তিনি এই প্রস্তাব দেন বলে অর্থ মন্ত্রণালয় এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে।

ব্রায়ান স্মিথ বাংলাদেশের বর্তমান কর ব্যবস্থায় বিদ্যমান সম্পূরক কর ও মূল্য সংযোজন কর হ্রাস করা যায় কি না, সেই বিষয়টি বিবেচনার অনুরোধ করেন।

অর্থমন্ত্রী কোকা-কোলাকে আরও বেশি বিনিয়োগ করার আহ্বান জানিয়ে বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিনিয়োগ এবং পুঁজিবাজারে নিবন্ধনের পরামর্শ দেন।

বেশি বিনিয়োগ করলে কোকা-কোলার সম্পূরক কর হ্রাস করার বিষয়টি বিবেচনা করা হবে হবে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়।

অর্থমন্ত্রী বলেন, “কোকা-কোলার ২০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগের মাধ্যমে বিশাল জনগোষ্ঠীর কর্মসংস্থানের সুযোগ হবে।”

বাংলাদেশে বিনিয়োগের আকর্ষণীয় পরিবেশের বিষয়টি তুলে ধরে তিনি বলেন, কোকা-কোলার উচিত বাংলাদেশে আরও বেশি বিনিয়োগ করা এবং জনমিতিক লভ্যাংশের সুযোগ নেওয়া।

বাংলাদেশের অগ্রগতির চিত্র তুলে ধরে মুস্তফা কামাল বলেন, “২০৩২ সালে পৃথিবীতে এক নম্বর দেশ হবে চীন, দুই নম্বর হবে আমেরিকা, তিন নম্বর হবে ইন্ডিয়া, চার নম্বর হবে জাপান, পাঁচ নম্বর হবে জার্মানি। চীন, ভারত ও জাপান এই তিনটি বৃহৎ অর্থনীতির দেশের মাঝে থাকবে বাংলাদেশ।

“বাংলাদেশের ভৌগোলিক অবস্থান দেশটিকে আঞ্চলিক যোগাযোগ, বিদেশি বিনিয়োগ এবং গ্লোবাল আউট সোর্সিংয়ের একটি কেন্দ্রে পরিণত করেছে। সুতারাং কৌশলগত কারণেই বাংলাদেশকে এড়িয়ে বিশ্বের সার্বিক অগ্রগতি সম্ভব নয়।”

কোকা-কোলার প্রেসিডেন্ট বৃহস্পতিবার শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ হুমায়ূনের সঙ্গেও দেখা করেন।

বৈঠকে তিনি আগামী বছরই ৫ কোটি ডলার বিনিয়োগের প্রতিশ্রুতি দেন বলে এক তথ্য বিবরণিতে জানানো হয়।

শিল্পমন্ত্রী কোকাকোলার সুনির্দিষ্ট বিনিয়োগ প্রস্তাব শিল্প মন্ত্রণালয়ে পাঠানোর আহ্বান জানিয়ে বলেন, এক্ষেত্রে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে সব ধরনের সহায়তা দেওয়া হবে।

শিল্পমন্ত্রী বাংলাদেশে বোতলজাত পানিসহ অন্যান্য স্বাস্থ্যসম্মত পানীয় তৈরিতে এগিয়ে আসার জন্য কোকা-কোলার প্রতি আহ্বান জানান।

স্মিথ বলেন, ভবিষ্যতে বাংলাদেশে বিভিন্ন মাত্রার চিনিযুক্ত পানীয় উৎপাদনের পরিকল্পনা রয়েছে তাদের।