সৈয়দপুর বিমানবন্দর নিয়ে ‘আগ্রহী’ নেপাল

  • জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-02-17 19:20:14 BdST

bdnews24

নেপাল তাদের ব্যবসা-বাণিজ্য প্রসারে বাংলাদেশের সৈয়দপুর বিমানবন্দর ব্যবহারের আগ্রহ দেখিয়েছে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্য মন্ত্রী টিপু মুনশি।

সোমবার সচিবালয়ে নেপালের পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রদীপ কুমার গাওয়ালির সঙ্গে মতবিনিময় শেষে বাণিজ্যমন্ত্রী সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, “পররাষ্ট্রমন্ত্রী হলেও তিনি দুই দেশের বাণিজ্যের উন্নয়নে কথা বলেছেন। কীভাবে যোগাযোগ বাড়ানো যায় সে বিষয়েও কথা হয়েছে।”

নেপালের সঙ্গে প্রেফারেনশিয়াল ট্রেড এগ্রিমেন্ট (পিটিএ) করার বিষয়ে অনেক দিন ধরেই বাংলাদেশের আলোচনা চলছে। আগামী মাসের প্রথম দিকে নেপাল ও বাংলাদেশের মধ্যে ঢাকায় সচিব পর্যায়ের বৈঠকেও এ বিষয়টি আসবে বলে বাণিজ্যমন্ত্রী জানান।

তিনি বলেন, “পিটিএ করার ক্ষেত্রে কিছু দূর এগিয়েছি। আবার কিছু কিছু প্রশ্ন রয়েছে। তাদের কিছু আইটেম আছে, আমাদেরও আইটেম রয়েছে। আগামী বৈঠকে এসব বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হবে।”

নেপালের পরারাষ্ট্রমন্ত্রী এসব সমস্যা সমাধানে একটা যৌথ দল গঠন করার প্রস্তাব দিয়েছে জানিয়ে টিপু মুনশি বলেন, “আমাদের সৈয়দপুর বিমানবন্দর ব্যবহারের কথা বলছেন তারা। রেলওয়ে যোগাযোগের বিষয়ে অনেক দূর এগিয়েছে। এ বিষয়টিকে তারা খুব গুরুত্ব দিয়েছেন।

“নেপালের বিরাগনগর থেকে সৈয়দপুরের বিমানবন্দরের ফ্লাইং টাইম প্রায় ২৫ মিনিট। এ বিমানবন্দর তারা ব্যবহার করতে পারলে যোগাযোগটা সহজ হবে।”

নেপাল কবে থেকে সৈয়দপুর বিমানবন্দর ব্যবহার করতে পারবে জানতে চাইলে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, “এটা উনাদের চাহিদা। আমি আজকে উনাদের বললাম আমি এ বিষয়ে ইমিডিয়েটলি সিভিল এভিয়েশন ও সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সাথে কথা বলব। আজকে প্রস্তাবের পর মনে হয়েছে এটা আমাদের ও উনাদের জন্য ভালোই হবে।

“প্রতিদিন এখন মোট দশটা ফ্লাইট ঢাকা থেকে সৈয়দপুর যাচ্ছে। উনারা যদি একটা-‍দুইটা ফ্লাইট শুরু করে তাহলে যোগযোগটা বাড়বে।”

বাংলাদেশ নেপালে কী কী রপ্তানি করতে পারে জানতে চাইলে বণিজ্যমন্ত্রী বলেন, “ওখানে আমাদের প্রচুর পণ্য রাপ্তানি হচ্ছে। প্রাণের অনেক আইটেম যাচ্ছে, পাটজাত পণ্য যাচ্ছে। হাইড্রো পাওয়ারের খরচ ওখানে কম, সেটা একটা বড় জিনিস। ৫০০ মেগাওয়াটের একটা কথাবার্তা চলছে।”