২৮ মে’র পর ব্যাংকাররা ‘প্রণোদনা ভাতা’ পাবেন না

  • নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-05-17 20:17:19 BdST

bdnews24

কোভিড-১৯ মহামারীর মধ্যে ঝুঁকি নিয়ে যে সব ব্যাংক কর্মকর্তা-কর্মচারী কাজ করছেন তারা ২৮মে’র পর আর ‘বিশেষ প্রণোদনা ভাতা’ পাবেন না।

রোববার এ বিষয়ে এক সার্কুলার জারি করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

সব ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীদের কাছে পাঠানো সার্কুলারে বলা হয়েছে, কোভিড-১৯ মহামারীর বিস্তার ঠেকাতে সাধারণ ছুটির মধ্যে যে সব ব্যাংক কর্মকর্তা-কর্মচারী স্বশরীরে ব্যাংকে উপস্থিত হয়ে কাজ করছেন তারা ‘বিশেষ প্রণোদনা ভাতা’ পাবেন বলে গত ১২ এপ্রিল এক সার্কুলারে জানানো হয়েছিল।

তবে এখন ব্যাংকিং কর্মকান্ড গতিশীল করার মাধ্যমে অর্থনীতি পুনরুজ্জীবিতকরণের লক্ষে অন্যান্য খাতের মত ব্যাংকিং কার্যক্রম চালু রাখার আবশ্যকতা পরিলক্ষিত হচ্ছে। সীমিত ব্যাংকিং কার্যক্রম ধীরে ধীরে প্রত্যাহারপূর্বক স্বাভাবিক ব্যাংকিং কার্যক্রম শুরু করার বিষয়ে বিষয়ে ইতোমধ্যে বাংলাদেশ ব্যাংক বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহন করেছে।

এ অবস্থায় ব্যাংকগুলোর কার্যক্রম পর্যায়ক্রমে স্বাভাবিক ধারায় ফিরিয়ে আনার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন আবশ্যক হয়ে পড়েছে।

এ প্রেক্ষাপটে, ২৮ মে’র পর হতে ব্যাংকারদের জন্য বিশেষ প্রণোদনা ভাতা প্রদান অব্যাহত রাখার আবশ্যকতা পরিলক্ষিত হয় না।

“এমতাবস্থায়, বিশেষ প্রণোদনা ভাতার পাপ্যতা সরকার ঘোষিত সাধারণ ছুটি শুরুর তারিখ হতে দুই মাস পর্যন্ত কার্যকর থাকবে। অর্থাৎ ২৯ মে  থেকে এই প্রণোদনা ভাতা আর পাওয়া যাবে না।”

গত ১২ এপ্রিল ব্যাংকারদের প্রণোদনার বিষয়ে যে সার্কুলার জারি করা হয়েছিল তাতে বলা হয়েছিল-

>> যে ব্যাংক কর্মকর্তা-কর্মচারী সাধারণ ছুটির সময়ে ব্যাংকে স্বশরীরে উপস্থিত হয়ে ব্যাংকিং কার্যক্রমে অংশগ্রহণের মাধ্যমে দায়িত্ব পালন করেছেন বা করছেন তারা বিশেষ প্রণোদনা ভাতা পাবেন।

>> সাধারণ ছুটির সময়ে কর্মকর্তা-কর্মচারীরা কমপক্ষে দশ কার্যদিবস স্বশরীরে ব্যাংকে কর্মরত থাকলে তা পূর্ণমাস হিসেবে গণ্য হবে।

>> তবে দশ কার্যদিবসের কম স্বশরীরে ব্যাংকে কর্মরত থাকলে সেক্ষেত্রে আনুপাতিক হারে উক্ত ভাতা পাবেন।

>> ব্যাংকের স্থায়ী, অস্থায়ী ও চুক্তিভিত্তিক সকল পর্যায়ের কর্মকর্তা ও কর্মচারী এই প্রণোদনা ভাতা পাবেন।

>> কর্মকর্তা-কর্মচারী তাদের স্ব স্ব মূল বেতনের সমপরিমাণ অর্থ মাসিক বিশেষ প্রণোদনা ভাতা হিসেবে পাবেন। যে সব অস্থায়ী বা চুক্তি ভিত্তিক কর্মকর্তা/কর্মচারীর মূল বেতন আলাদাভাবে নির্ধারিত নেই তারা মাসিক মোট বেতন-ভাতার ৬৫ শতাংশ মাসিক বিশেষ প্রণোদনা ভাতা হিসেবে পাবেন।তবে সবক্ষেত্রেই এ বিশেষ প্রণোদনা ভাতার পরিমাণ মাসিক ন্যুনতম ৩০ হাজার টাকা এবং সর্বোচ্চ এক লাখ টাকা হবে।

>> সাধারণ ছুটি শুরু হওয়ার দিন থেকে মাস গণনা শুরু হবে। প্রতি ৩০ দিন অতিক্রান্ত হওয়ার পর পুণরায় নতুন মাস গণনা শুরু হবে।

>> এ নির্দেশনা সরকার ঘোষিত সাধারণ ছুটির মেয়াদকাল পর্যন্ত বলবৎ থাকবে।

>> ব্যাংক কোম্পানি আইন, ১৯৯১ এর ৪৫ ধারায় প্রদত্ত ক্ষমতাবলে এ নির্দেশনা জারি করা হল।