প্রণোদনার ঋণ ছাড়ে এবার সময় বেঁধে দেওয়া হল

  • প্রধান অর্থনৈতিক প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-07-02 22:49:28 BdST

bdnews24

মহামারী থেকে অর্থনীতি উদ্ধারে সরকারের প্রণোদনা প্যাকেজের অর্থ ছাড়ে ব্যাংকগুলোর গড়িমসি দেখে এবার সময় বেঁধে দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

সব ব্যাংকের নির্বাহী প্রধানদের সঙ্গে গভর্নর ফজলে কবিরের এক বৈঠকের আলোকে বৃহস্পতিবার ব্যাংকগুলোকে এই সংক্রান্ত নির্দেশনা পাঠানো হয়।

তাতে বলা হয়, প্রণোদনা প্যাকেজের বেশিরভাগ ঋণ চলতি জুলাই মাসের মধ্যে বিতরণ করতে হবে, অবশিষ্ট অংশ বিতরণ অগাস্ট মাসের মধ্যে শেষ করতে হবে।

দেশে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের পর মহামারীর প্রভাব থেকে অর্থনীতিকে উদ্ধারে গত মার্চ থেকে কয়েক দফায় সরকার লক্ষ কোটি টাকার প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করে।

প্রণোদনার এই অর্থ ব্যাংকগুলো থেকে ঋণ হিসেবে পাবে শিল্পোদ্যোক্তারা, ওই ঋণের সুদের অর্ধেক সরকার পরিশোধ করবে।

প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণার পর ব্যাংকগুলো অর্থ সঙ্কটের কথা তুললে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পক্ষ থেকে তহবিল জোগানের উদ্যোগও নেওয়া হয়।

তবে এরপরও ঋণ দিতে ব্যাংকগুলো ধীর গতিতে চলছে বলে এফবিসিসিআইসহ ব্যবসায়ীদের বিভিন্ন সংগঠন অভিযোগ করে আসছিল, কেন্দ্রীয় ব্যাংকও হতাশা প্রকাশ করছিল।

এর মধ্যেই গত ১৭ জুন গভর্নর ফজলে কবির সব ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীদের সঙ্গে প্রণোদনা প্যাকেজ বাস্তবায়নের অগ্রগতি নিয়ে সভা করেন। ওই সভায় ক্ষতিগ্রস্ত শিল্প ও সেবা খাতের জন্য  ঘোষিত ৩০ হাজার কোটি টাকার প্যাকেজ নিয়ে আলোচনা হয়।

এরপর গত ২ জুলাই বৃহস্পতিবার পর্যালোচনা সভা হয় ক্ষুদ্র (কুটির শিল্পসহ) ও মাঝারি শিল্প প্রতিষ্ঠানের জন্য ঘোষিত ২০ হাজার কোটি টাকার প্যাকেজের ঋণ বিতরণের অগ্রগতি নিয়ে।

দুই সভায়ই ব্যাংকগুলোর প্রধান নির্বাহীরা চলতি জুলাই মাসের মধ্যে প্যাকেজগুলোর বেশিরভাগ বাস্তবায়ন করার লক্ষ্যে উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে বলে কেন্দ্রীয় ব্যাংককে জানান।

এরপর সময়সীমা জানিয়ে ওই নির্দেশনা পাঠানো হয়।

এতে বলা হয়েছে, কোভিড-১৯ এর প্রাদুর্ভাবের ফলে ক্ষতিগ্রস্ত শিল্প, সেবা ও কৃষিখাতসহ আয়-উৎসারী কর্মকাণ্ড পুনরায় সচল করার লক্ষ্যে বাংলাদেশ ব্যাংক হতে বিভিন্ন ঋণ প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করা হয়। এই প্যাকেজসমূহ যথাসময়ে বাস্তবায়িত না হলে প্যাকেজ প্রণয়ণের মূল উদ্দেশ্যই ব্যাহত হবে।

এই প্রণোদনা প্যাকেজ বাস্তবায়নে বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে সব ধরনের সহযোগিতা দেওয়া হবে বলেও ব্যাংকগুলোকে বলা হয়েছে।