অস্থির সোনার বাজারে দর চড়ছেই

  • আবদুর রহিম হারমাছি, প্রধান অর্থনৈতিক প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-08-05 23:14:26 BdST

কোভিড-১৯ মহামারীতে অর্থনীতিতে স্থবিরতার মধ্যে আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাংলাদেশের বাজারেও সোনার দাম বেড়েই চলেছে।   

দেশের বাজারে মাত্র ১২ দিনের ব্যবধানে সব ধরনের সোনার দাম চার হাজার ৪৩২ টাকা করে বেড়েছে। সবচেয়ে ভালো মানের সোনার দাম উঠেছে ৭৭ হাজার ২১৬ টাকায়।

দেশে এর আগে কখনই এত বেশি দামে সোনা বিক্রি হয়নি বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতির (বাজুস) সাধারণ সম্পাদক দিলীপ কুমার আগরওয়ালা।

তিনি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “আন্তর্জাতিক বাজারে প্রতি মুহূর্তে বাড়ছে গোল্ডের দাম। এমন অস্থির বাজার আমি আমার জীবনে দেখিনি। গোল্ডের দাম শেষ পর্যন্ত কোথায় গিয়ে দাঁড়াবে, আমি নিজেও বুঝতে পারছি না।”

পরিসংখ্যান দিয়ে আগরওয়ালা বলেন, সর্বশেষ গত ২৪ জুলাই বাজুসের পক্ষ থেকে সোনার দাম বাড়ানোর ঘোষণা দেওয়া হয়। তখন আন্তর্জাতিক বাজারে প্রতি আউন্সের (৩১.১০৩৪৭৬৮ গ্রাম, ২.৬৫ ভরি) দাম ছিল ১৮৯০ ডলার। বুধবার তা ২০৩৬ ডলারে উঠেছে। অর্থাৎ এই ১২ দিনে প্রতি আউন্স স্বর্ণের দাম ১৪৬ ডলার বেড়েছে।

“আমাদের কিছুই করার নেই। বাধ্য হয়েই আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে সমন্বয় করতে আমাদের স্থানীয় বাজারে দাম বাড়াতে হচ্ছে,” বলেন ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ডের মালিক আগরওয়ালা।

দাম সামনে আরও বাড়ার আভাস দিয়ে তিনি বলেন, “কোভিড-১৯ মহামারীতে সবাই এখন নিরাপদ বিনিয়োগ ভেবে গোল্ড কিনে মজুদ রাখছে। ফলে বুঝতে পারছি না, আন্তর্জাতিক বাজারে গোল্ডের দাম বাড়তে বাড়তে কোথায় গিয়ে ঠেকবে।”

সোনার ভরি ৭৩ হাজার টাকায় উঠেছে

সোনার ভরি ৭০ হাজার টাকা ছুঁইছুঁই

সোনার দাম বাড়ল, ‘কারণ’ করোনাভাইরাস  

আগরওয়ালা বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট অর্থনৈতিক সঙ্কট, চীন-যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্য যুদ্ধের কারণে ইউএস ডলারের প্রাধান্য খর্ব, জ্বালানি তেলের দর পতন এবং নানাবিধ অর্থনৈতিক সমীকরণের কারণে আন্তর্জাতিক বাজারে স্বর্ণের মূল্য ইতিহাসের সর্বোচ্চ উচ্চতায় অবস্থান করছে।

এরই ধারাবাহিকতায় দেশীয় বুলিয়ন মার্কেটেও সোনার দাম বাড়ানো হয়েছে, বলেন এফবিসিসিআই সহ-সভাপতি আগরওয়ালা।

এর আগে সর্বশেষ ২৩ জুলাই সব ধরনের সোনার দাম প্রতি ভরিতে তিন হাজার টাকা বাড়ানো হয়েছিল। তার এক মাসে আগে ২২ জুন সোনার দাম বাড়ানো হয় ভরিতে ৫ হাজার ৭১৫ টাকা।

অতীতে দেখা গেছে, দেশের বাজারে সোনার দাম সাধারণত ভরিতে এক হাজার থেকে দেড় হাজার টাকা হ্রাস-বৃদ্ধি করা হয়।

তবে বিশ্ব বাজারে অস্বাভাবিক দাম বৃদ্ধির কারণে এখন বেশি দাম বাড়াতে হচ্ছে, বলছেন আগরওয়ালা।

জুয়েলার্স সমিতি বুধবার রাতে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলেছে, বৃহস্পতিবার থেকে সারা দেশে সোনার নতুন দর কার্যকর হবে।

বৃহস্পতিবার থেকে ২২ ক্যারেটের এক ভরি (১১ দশমিক ৬৬৪ গ্রাম)

সোনার অলংকার (সবচেয়ে ভালো মানের সোনা) কিনতে লাগবে ৭৭ হাজার ২১৬ টাকা। বুধবার পর্যন্ত তা ৭২ হাজার ৭৮৩ টাকায় বিক্রি হয়েছিল।

এ ছাড়া ২১ ক্যারেট ৭৪ হাজার ৬৬ টাকা, ১৮ ক্যারেট ৬৫ হাজার ৩১৮ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতির সোনার ভরি বিক্রি হবে ৫৪ হাজার ৯৯৬ টাকায়।

বুধবার পর্যন্ত ২১ ক্যারেট ৬৯ হাজার ৬৩৪ টাকা, ১৮ ক্যারেট ৬০ হাজার ৮৮৬ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতির সোনা বিক্রি হয়েছে ৫০ হাজার ৫৬০ টাকায়।

সোনার দাম বাড়লেও দেশে রুপার দাম অপরিবর্তিত থাকবে, ভরি ৯৩৩ টাকায়।